শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ১২:০৩
আপডেট : ২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:৩০
প্রিন্ট করুন printer

এমপিরা নাইট ক্লাবে যাওয়ায় ক্ষমা চাইলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক

এমপিরা নাইট ক্লাবে যাওয়ায় ক্ষমা চাইলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী

ক্ষমতাসীন জোটের একাধিক আইনপ্রণেতা মহামারি করোনা ঝুঁকির মধ্যেই নাইট ক্লাবে যাওয়ায় লজ্জিত হয়ে দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা। বুধবার পার্লামেন্টে তিনি বলেন, আমি এ ঘটনায় অত্যন্ত দুঃখিত। প্রত্যেক আইনপ্রণেতার এমন আচরণ করা উচিত যাতে তারা জনগণের আস্থা অর্জন করতে পারেন।

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পেতে পারে এমন ঝুঁকিতে জনগণকে অপ্রয়োজনে ঘরের বাইরে না যেতে অনুরোধ করেছে জাপানের সরকার। এরমধ্যেই আইনপ্রণেতাদের এমন কাণ্ডে দেশটির জনমনে ব্যাপক সমালোচনা তৈরি হয়েছে।

ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে জাপানের টোকিওসহ অন্যান্য অঞ্চলে এ মাসে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়। এই পদক্ষেপের আওতায় রেস্টুরেট ও বারগুলোকে রাত ৮টার মধ্যে বন্ধ করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। যদিও অনুরোধ না মানলে কোনো শাস্তির বিধান রাখা হয়নি।

নাইট ক্লাবে যাওয়া ক্ষমতাসীন লিবারাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির সদস্য ও জ্যেষ্ঠ আইনপ্রণেতা জুন মাৎসুমোতো বলেন, আমার আচরণ অসাবধান ছিল যখন আমরা জনগণকে ধৈর্য্যশীল থাকার অনুরোধ করছি।

মাৎসুমোতো সোমবার (২৫ জানুয়ারি) একটি রেস্টুরেন্টে খাবার খেয়ে টোকিওর অভিজাত জেলা গিনজার দুটি নাইট ক্লাবে গিয়েছেন। কোমেইতো দলের আইনপ্রণেতা কিয়োহিকো তোয়ামাও ক্ষমা চেয়েছেন। শুক্রবার পর্যন্ত তিনি গিনজার একটি অভিজাত নাইট ক্লাবে গিয়েছেন।

এদিকে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী সুগার পদক্ষেপ নিয়েও জাপানে সমালোচনা চলছে। সমালোচকরা বলছেন, মহামারি মোকাবিলা করা হচ্ছে খুব ধীরে ও অনিয়মিতভাবে।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর