শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৬ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ এপ্রিল, ২০১৬ ২৩:৫৮

কৃষকের স্মারকলিপি

রূপগঞ্জে আবাদি জমিতে বালু ভরাট বন্ধের দাবি

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

রূপগঞ্জে আবাদি জমিতে বালু ভরাট বন্ধের দাবি

রূপগঞ্জে অনুমোদন ছাড়াই কৃষকদের আবাদি জমি জোরপূর্বক দখল করে বালু ভরাটের পাঁয়তারা, স্থানীয় কৃষকদের জমিতে সাইনবোর্ড স্থাপন, মামলা-হামলার হুমকিসহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে পূর্বাচল রিডিম সিটি নামে একটি আবাসন প্রকল্পের নিয়োজিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে। সোমবার সকালে উপজেলার রুহিলা, আগলা, বাটপাড়া, বাগলা, দুয়ারাসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের কৃষক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ (ইউএনও) বিভিন্ন দফতরের আবাদি জমিতে অবৈধভাবে বালু ভরাট স্থগিতের দাবিতে গণস্বাক্ষরিত স্মারকলিপি প্রদান করেছেন। কৃষকরা জানান, উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের রুহিলা এলাকায় প্রায় ১ হাজার বিঘা জমির ওপর আবাদি কৃষি প্রকল্প রয়েছে। ওই প্রকল্পে রুহিলা, আগলা, বাটপাড়া, বাগলা, দুয়ারাসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের কৃষকদের জমি রয়েছে। এসব গ্রামের মানুষের একমাত্র পেশা কৃষি। কৃষি কাজ করেই তাদের জীবিকা নির্বাহ করতে হয়। এ ছাড়া এ প্রকল্পে উত্পাদিত ইরি, বোরো ধান ও শীতকালীন আমন চাষ, মত্স্য চাষ, বিভিন্ন প্রকার ফল ফলাদি, শাকসবজি রূপগঞ্জসহ আশপাশের এলাকার মানুষের চাহিদা মেটায়। কয়েক মাস আগে স্থানীয় জামান, আবদুস সাত্তার, সৈকত, সোহেল, মাহাবুবসহ আরও বেশ কয়েকজন রুহিলা এলাকার কৃষকদের আবাদি এ প্রকল্পের জন্য কয়েক দফায় খণ্ড খণ্ড করে কয়েক স্থানে ৯০ শতাংশ জমি ক্রয় করেন। এরপর তারা এসব জমিতে রিডিম পূর্বাচল সিটি নামে একটি আবাসন প্রকল্পের সাইনবোর্ড স্থাপন করেন। তাদের ক্রয়কৃত জমির পাশাপাশি জোরপূর্বক স্থানীয় কৃষকদের জমিতেও সাইনবোর্ড স্থাপন শুরু করেন। ইতিমধ্যে জবরদখলের ভয়ে কৃষকরা তাদের জমিতে নিজস্ব সাইনবোর্ড স্থাপন করতে শুরু করেছেন। কৃষকরা কেউ প্রতিবাদ করলে তাদের মামলা-হামলার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। অবহেলিত এসব গ্রামের কৃষকদের জমি জোরপূর্বক দখল করে বালু ভরাটের পাঁয়তারা করছে আবাসন প্রকল্পে নিয়োজিত সন্ত্রাসীরা। কৃষকদের একটাই কথা ‘জান দেব তবুও জমি দেব না’। কৃষকরা আবাসন প্রকল্প অপসারণ ও বালু ভরাট স্থগিতের দাবি জানান। তা না হলে বৃহৎ আন্দোলন গড়ে তুলবেন বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন কৃষকরা। এর আগে,  শুক্রবার বিকালে উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের রুহিলা এলাকায় বিক্ষুব্ধ কৃষকরা দখলদারদের বিরুদ্ধে জুতা ও ঝাড়ু মিছিল বের করেন। মিছিলটি রুহিলাসহ আশপাশের এলাকায় প্রদক্ষিণ করে। মিছিল শেষে প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযোদ্ধা হাজী আবদুস সালাম, সিরাজ উদ্দিন, হাজী আবদুল বরকত মাস্টার, জালাল উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ। মিছিলে কৃষকদের পাশাপাশি নারীরাও অংশ গ্রহণ করেন। ভুক্তভোগী কৃষকরা আরও জানান, দখলদারদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় স্থানীয় বেশ কয়েকজন কৃষকের বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় মিথ্যা চাঁদাবাজির অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারহানা ইসলাম বলেন, কৃষকদের জমি জবরদখল করে সাইনবোর্ড স্থাপন ও বালু ভরাট করা অন্যায়। ওই আবাসন প্রকল্পের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মন্তব্য