Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৩৩

আমিরাতে পুরনো পাসপোর্টে বিপাকে বাংলাদেশিরা

মুহাম্মদ সেলিম, সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ফিরে

আমিরাতে পুরনো পাসপোর্টে বিপাকে বাংলাদেশিরা

পুরনো হাতের লেখা পাসপোর্ট নিয়ে বিপাকে আছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) প্রবাসী বাংলাদেশিরা। আমিরাত সরকার সাধারণ ক্ষমার মাধ্যমে অবৈধ প্রবাসীদের পাসপোর্টের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলে আশার আলো দেখেন প্রবাসীরা। তারা হাতে লেখা পুরনো পাসপোর্ট নবায়ন করতে প্রতিদিনই আবুধাবির বাংলাদেশ দূতাবাস ও দুবাই কনস্যুলেট অফিসে ভিড় করছেন। কিন্তু এসব পাসপোর্ট নবায়ন করার বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না বাংলাদেশ মিশন। হাতে লেখা পুরনো পাসপোর্ট নবায়ন করতে না পারলে দেশে ফিরে আসতে হবে লাখো প্রবাসী বাংলাদেশিকে।

এ বিষয়ে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, ‘প্রবাসীদের পুরনো পাসপোর্ট নবায়নে বাংলাদেশ মিশন সহায়তা করছে না এ বিষয়টা জানা ছিল না। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’ বাংলাদেশের দুবাই কনস্যুলেট অফিসের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ‘পাসপোর্ট ইস্যুর তারিখ থেকে ১০ বছর পূর্ণ হলে তা পুনরায় পুলিশ ভেরিফিকেশনের প্রয়োজন হয়। প্রবাসীরা যেসব পাসপোর্ট নিয়ে আছেন তার বেশির ভাগেরই ইস্যুর তারিখ থেকে ১০ বছরের বেশি সময় পার হয়েছে। এ ছাড়া নানান জটিলতা তো রয়েছেই। তাই হাতে লেখা পুরনো পাসপোর্ট নবায়নে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। তবে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা চাইলে বিষয়টি সহজেই সুরাহা করতে পারেন।’ তিনি বলেন, ‘দেশের স্বার্থেই হাতে লেখা পুরনো পাসপোর্টগুলো নবায়নের সুযোগ দেওয়া দরকার। তা না হলে অনেক প্রবাসীকে আমিরাত ছাড়তে হবে।’ জানা যায়, গত ১ আগস্ট থেকে প্রবাসীদের তিন মাসের জন্য সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করে আমিরাত সরকার। এ কর্মসূচির আওতায় অবৈধ প্রবাসীরা বৈধ হওয়ার সুযোগ পাওয়ার পাশাপাশি জেল-জরিমানা ছাড়াই আমিরাত ছাড়তে পারবেন। একই সঙ্গে পুনরায় বৈধভাবে আমিরাতে প্রবেশের সুযোগও দেওয়া হয়েছে। এ ঘোষণার পরপরই দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে বসবাস করা প্রায় লাখো বাংলাদেশি আশার আলো দেখেন। তারা হাতে লেখা ও পুরনো পাসপোর্ট নিয়ে ছুটতে থাকে আবুধাবি বাংলাদেশ দূতাবাস ও দুবাই কনস্যুলেট অফিসে। কিন্তু বাংলাদেশ দূতাবাস ও কনস্যুলেট অফিসে যাওয়ার পর পাসপোর্ট নবায়নের জন্য প্রবাসীদের নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। দুবাইপ্রবাসী ব্যবসায়ী মোহাম্মদ টিটো ও রোকন উদ্দিন বলেন, আমিরাত সরকার অবৈধ প্রবাসীদের হাজার দিরহাম জরিমানা মওকুফসহ পুনরায় ভিসা লাগানোর সুযোগ দিচ্ছে। অথচ বাংলাদেশ মিশন প্রবাসীদের পাসপোর্ট নবায়নে নিরুৎসাহিত করছে। বাংলাদেশ মিশনের অবহেলায় লাখো বাংলাদেশিকে আমিরাত ছাড়তে হবে। মিশনের এ ধরনের আচরণের কারণে প্রবাসীদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে। দুবাইপ্রবাসী ওসমান অনু নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, বাংলাদেশিদের ভিসা বন্ধ থাকায় প্রবাসীরা নানা সমস্যায় রয়েছেন। এতদিন পর যাদের ভিসার মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে অবৈধ হয়ে গেছে তাদের ভিসা লাগানোর একটা সুবর্ণ সুযোগ এসেছে।

কিন্তু বাংলাদেশি মিশনের অসহযোগিতার কারণে পাসপোর্ট নবায়নের জটিলতায় প্রবাসীদের সে স্বপ্ন ধূলিসাৎ হতে চলেছে। আবুধাবি প্রবাসী ব্যবসায়ী মোহাম্মদ সেলিম বলেন, ‘বাংলাদেশ মিশন সহযোগিতার হাত বাড়ালে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের সবচেয়ে বেশি লাভ হতো। এখন বাংলাদেশের বেশির ভাগ ব্যবসায়ীকে উচ্চ বেতনে অন্য দেশের শ্রমিকদের নিয়োগ দিতে হচ্ছে। অবৈধ প্রবাসীরা বৈধ হলে তুলনামূলকভাবে কম বেতনে শ্রমিক পাওয়া যেত।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর