শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ জানুয়ারি, ২০২০ ২৩:৫৬

অষ্টম কলাম

এরশাদের বাসভবনের ১১ কর্মচারীকে বিদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক

এরশাদের বাসভবনের ১১ কর্মচারীকে বিদায়

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ১১ কর্মচারীকে বারিধারার বাসভবন ‘প্রেসিডেন্ট পার্ক’ থেকে ১ জানুয়ারি বিদায় দেওয়া হয়েছে। তাদের বেশির ভাগই প্রায় ২৫ বছর ধরে এরশাদের বাসভবনে কাজ করেন। এরশাদের আস্থাভাজন ওই সব কর্মচারী হলেন গাড়িচালক আবদুল আউয়াল, আজিজুর রহমান ও আবদুল মান্না, ব্যক্তিগত সহকারী আবদুল ওয়াহাব ও মতিউর  রহমান, পাচক ডিউক রোজারিও ও বিপ্লব হোসেন, ক্যামেরাম্যান আবদুস সাত্তার, কাজের বুয়া নিপা ও রুবিনা এবং মালী আতাউর রহমান। এ বিষয়ে জানতে চাইলে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ ট্রাস্টের পরিচালক মেজর (অব.) খালেদ আকতার বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, বারিধারার বাসভবন থেকে এরশাদের বিশ্বস্ত কর্মচারী, যারা সাবেক রাষ্ট্রপতির জীবনের শেষ দিনগুলোতে তার পাশে থেকে সেবা দিয়েছেন বিদিশা তাদের সবাইকে বিদায় দিয়েছেন। ব্যাপারটা খুবই দুঃখজনক। আমরা ট্রাস্ট থেকে তাদের বেতন দিতাম। এখন বিদিশা তার নিজস্ব লোক নিয়োগ দিয়েছেন। আমরা বিদিশার লোকদের বেতন দেব কি না? মিটিং করে সিদ্ধান্ত নেব। এ বিষয়ে বিদিশা বলেন, আমি কেন বিদায় করব? আমি বিদায় করার কে? কথাটা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। তিনি বলেন, এরশাদ সাহেবের মৃত্যুর পর তারা এমনিতেই কেউ প্রেসিডেন্ট পার্কে নিয়মিত ছিল না। যার যখন খুশি আসত যখন খুশি দেশের বাড়িতে ছুটি কাটাত? এরিকের দেখাশোনা ঠিক মতো হচ্ছিল না বিধায় এরিক আমাকে ডেকে আনে। আমি আসার পর দুজন কাজের লোক আর দুজন বাবুর্চি একজন ড্রাইভারকে পেয়েছি। আর বাকিদের আমি দেখিনি, মাঝে মাঝে ওহাব আসত। আমি অবস্থানকালে ট্রাস্ট থেকে তাদের কাউকে বেতন দেওয়া হতো না তাই তারা এরিককে বলে স্বেচ্ছায় নিজ নিজ অবস্থান থেকে অব্যাহতিপত্র দিয়েছে।


আপনার মন্তব্য