শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ মে, ২০২০ ২৩:৫৮

হুট করে তামাক উৎপাদন বন্ধ নয়

জানিয়ে দিল শিল্প মন্ত্রণালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক

হুট করে তামাক উৎপাদন বন্ধ নয়

তামাক উৎপাদন ও বিক্রি বন্ধে সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধের পর শিল্প মন্ত্রণালয় সাফ জানিয়ে দিয়েছে, তারা এই শিল্পটি বন্ধের কোনো সিদ্ধান্ত দিচ্ছে না। বরং তারা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলকে পরামর্শ দিয়েছে তারা যেন, ধূমপায়ীদের মোটিভেশন করেন।

গতকাল শিল্প মন্ত্রণালয় থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে যুক্তি দিয়ে বলা হয়, তামাকের উৎপাদন বন্ধ হয়ে গেলে কালোবাজারিরা উৎসাহিত হবে এবং আমদানিকৃত সিগারেটসহ তামাকজাত পণ্যের মাধ্যমে  দেশ মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা ও রাজস্ব আয় হারাবে। এক্ষেত্রে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অধীন জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ  সেল ধূমপায়ী ও তামাক জাতীয় পণ্য সেবীদের মধ্যে এটি পরিহারের জন্য প্রচার জোরদার করতে পারে। এর আগে মঙ্গলবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে তামাক উৎপাদন ও বিপণন বন্ধের যৌক্তিকতা উল্লেখ করে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে শিল্প মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়। ওই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক কনফারেন্সে শিল্প মন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনের কাছে সাংবাদিকরা ওই চিঠির বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানতে চান। এ সময় শিল্পমন্ত্রী জানান, সাময়িকভাবে তামাক উৎপাদন ও বিপণন বন্ধের বিষয়ে তার মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নেবে। পরে শিল্পমন্ত্রীর ওই মন্তব্য ধরে গণমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে শিল্প মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক ব্যাখ্যায় বলা হয়, এই শিল্প হুট করে বন্ধ করে দেওয়া হলে, একদিকে যেমন দেশ বিরাট অঙ্কের রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হবে, অন্যদিকে তেমনি বিপুল পরিমাণে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের সুযোগও বন্ধ হয়ে যাবে। আবার তামাক পাতা না কিনলে প্রান্তিক চাষিরা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। ব্যাখ্যায় আরও বল হয়, ধূমপান কিংবা তামাক জাতীয় পণ্যের ব্যবহার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হলেও এর  সেবনকারীরা তা জেনেশুনে সেবন করছেন। এ শিল্প সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিলেও, তারা এটি সেবন করবেন।


আপনার মন্তব্য