শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ২৩:৩৫

ঐতিহ্য

জামালপুরে জমেছিল ঘোড়দৌড় আর লাঠিখেলা

জামালপুর প্রতিনিধি

জামালপুরে জমেছিল ঘোড়দৌড় আর লাঠিখেলা

বিলুপ্তপ্রায় ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে জামালপুরে জমেছিল গ্রামবাংলার ঐতিহ্য ঘোড়দৌড় ও লাঠিবাড়ি খেলা। খেলায় অংশ নিতে দূর-দূরান্ত থেকে এসেছিল তেজি ঘোড়া ও সোয়ার। আকর্ষণ বাড়াতে লাঠিবাড়ি খেলায় মেতে ওঠেন চৌকস লাঠিয়ালরা। এসব দেখতে ভিড় জমান হাজারো দর্শক।

গতকাল জামালপুর সদরের ধোপাকুড়ি এলাকায় আয়োজন করা হয় এসব খেলার। জেলার বিভিন্ন উপজেলা ছাড়াও শেরপুর, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, টাঙ্গাইল থেকে সেরা ৪৫টি তেজি ঘোড়া ও সাহসী সোয়ার নিয়ে প্রতিযোগীরা হাজির হন। খেলাকে ঘিরে আশপাশের এলাকাগুলোতে ছড়িয়ে পড়ে উৎসবের আমেজ। মাঠের চারপাশে ভিড় জমান নারী-পুরুষ, শিশু-কিশোরসহ কয়েক হাজার দর্শক। কদম ও দপট দুই পদ্ধতিতে হয় ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা। দপট পদ্ধতিতে তেজি ঘোড়া নিয়ে সাহসী সোয়াররা অংশ নেন। বেশ কয়েক দফায় খেলার আয়োজন করা হয়, ধাপে ধাপে অংশ নেওয়া বিজয়ী ঘোড় সোয়ারিদের নিয়ে হয় চূড়ান্ত আয়োজন। উৎসবের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেয় স্থানীয়দের লাঠিখেলা। বাদ্য ও সানাইয়ের তালে তালে ছন্দনৃত্যের আদলে লাঠিখেলা জমে ওঠে নবীন ও প্রবীণদের মধ্যে। দীর্ঘদিন পর এমন নির্মল বিনোদনের আয়োজন করায় বেশ উপভোগ করেন খেলা দেখতে আসা দর্শকরা। তাদের প্রত্যাশা থাকে প্রতি বছরই যেন আয়োজন করা হয় এমন বিনোদনের। খেলা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন আয়োজকরা। ঘোড়ার দপট দৌড় প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকারী সিরাজগঞ্জের লাল মাহমুদের হাতে তুলে দেওয়া হয় ২১ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন, দ্বিতীয় স্থান অর্জনকারী টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীর আমজাদ হোসেন পান ১৪ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন, আর তৃতীয় স্থান অধিকারী সদরের কবিরের হাতে তুলে দেয়া হয় মোবাইল ফোন। এ ছাড়াও ঘোড়ার কদম দৌড় প্রতিযোগিতায় প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন জামালপুরের মাদারগঞ্জের নজরুল ইসলাম, তিনি জিতে নেন ২১ ইঞ্চি ও ১৪ ইঞ্চি রঙিন টেলিভিশন এবং তৃতীয় স্থান অধিকারী জুয়েল মাহমুদ জিতে নেন মোবাইল ফোন। শাহ আলম মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন কেন্দুয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল হক নুরুল, স্থানীয় ইউপি সদস্য সৈয়দুর রহমান, ছানোয়ার হোসেন প্রমুখ।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর