শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৪৫

ঝিনাইদহে হাত পা মুখ বাঁধা অবস্থায় সাংবাদিক উদ্ধার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহে সাংবাদিক মনিরুজ্জামান মনিরকে অপহরণ করে হত্যার উদ্দেশ্যে চোখ বেঁধে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে নির্যাতন করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা। হত্যাচেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে হাত-পা ও চোখ-মুখ বেঁধে ফেলে যায় রাস্তার পাশে। স্থানীয়রা উদ্ধার করে শৈলকুপা হাসপাতালে ভর্তি করেন। সাংবাদিক মনির উপজেলার কাচের কোল গ্রামের আকবর শেখের ছেলে। তিনি জয়যাত্রা টেলিভিশন ও সময়ের কাগজ পত্রিকার শৈলকুপা প্রতিনিধি। জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে কচুয়া বাজার ব্রিজের ওপর থেকে তাকে চোখ বেঁধে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় মাদক ব্যবসায়ী। হত্যাচেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে নির্যাতন শেষে হাত-পা ও চোখ-মুখ বেঁধে গতকাল ভোরে ফেলে রেখে যায় শেলকুপার ধাওড়া গ্রামের রাস্তার ধারে। স্থানীয়রা জানান, ভোরে শিক্ষার্থীরা রাস্তার ধারে হাত-পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় একজনকে পড়ে থাকতে দেখে। পরে আশপাশের লোকজন এসে তার বাঁধন খুলে দেন। জানতে পারেন তিনি সাংবাদিক। পরে তাকে শৈলকুপা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সাংবাদিক মনির জানান, কাচের কোল ইউনিয়নের মাদকসম্রাট ডিশ বাবু, জাহাঙ্গীর, বিল্লালসহ কয়েকজনের মাদক বেচাকেনা ও সেবনের ভিডিও ধারণ করে সংবাদ প্রকাশ করেন। মাদক ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ হয়ে মঙ্গলবার রাতে তাকে মাইক্রোবাসে তুলে চোখ-মুখ ও হাত-পা বেঁধে ফেলে। অপহরণকারীরা বলতে থাকে ‘আমাদের বিরুদ্ধে নিউজ করার সাহস তোকে কে দিল!’ ডিশ বাবু বলে ‘ওকে ফাঁকা মাঠে নিয়ে জবাই করতে হবে।’ তিনি জানান, সংবাদ প্রকাশের পর থেকে মাদক ব্যবসায়ীরা বিভিন্নভাবে হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল। কাচের কোল গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে ইউপি সদস্য ডিশ বাবু, সাদেকপুর গ্রামের মৃত নতো শেখের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন, মধুদাহ গ্রামের তাজো শেখের ছেলে বিল্লাল মিয়া, কাচের কোল গ্রামের মৃত আশাহক মিয়ার ছেলে আশরাফুল মিয়া, করিম মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়া, নুর আলী বিশ্বাসের ছেলে স্বপন বিশ্বাসসহ অজ্ঞাত চার-পাঁচ জন এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলে তিনি দাবি করেন। বর্তমানে সাংবাদিক ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ বিষয়ে তিনি মামলা করবেন বলে জানান।

এ ব্যাপারে ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, ইউপি সদস্য ডিশ বাবু বলেন, ‘মনির আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।’ উল্লেখ্য, কাচের কোল ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ইমরান হোসেন ওরফে বাবু মিয়া ডিশ বাবু হিসেবে পরিচিত। জানা যায়, এলাকায় তিনি গড়ে তুলেছেন মাদক সিন্ডিকেট। অবিলম্বে ডিশ বাবুকে গ্রেফতার করে আইনানুগ ব্যবস্থার দাবি জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ও এলাকাবাসী। শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর