শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৫ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৪ মে, ২০২১ ২৩:৪৪

জামালপুরে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

জামালপুর প্রতিনিধি

জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলায় ধানের জমিতে পানি দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় বাবুল শেখ নামে এক যুবলীগহ নেতার মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ দুই নারীসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে।

নিহত বাবুল শেখ (৩৫) মেলান্দহের সাধুপুর গ্রামের মুনসব আলী শেখের ছেলে। তিনি নয়ানগর ইউনিয়ন যুবলীগের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি ছিলেন।

পুলিশ জানায়, গত রবিবার সন্ধ্যায় বাবুলের চাচাত ভাই নন্দ শেখের ছেলে সোলায়মানের সঙ্গে জমিতে পানি দেওয়াকে কেন্দ্র করে বাকবিতন্ডার জের ধরে বাবুলের লোকজন সোলায়মানকে মারধর করে। এর জের ধরে পরদিন সোমবার সকাল ৮টার দিকে আবারও সোলায়মানের লোকজনের সঙ্গে বাবুলের লোকজনের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। একপর্যায়ে সোলায়মানের পক্ষ নিয়ে প্রতিবেশী শরাফত আলীর স্বজনরাও এগিয়ে এলে সংঘর্ষে রূপ নেয়। সংঘর্ষে বাবুল শেখের মাথায় আঘাত লাগলে গুরুতর আহত হন। এ সময় স্থানীয়রা বাবুলকে উদ্ধার করে প্রথমে মেলান্দহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে জামালপুর ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানেও তার অবস্থার অবনতি হলে সোমবারই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বাবুল মারা যান। এ ঘটনায় সোমবার রাতেই বাবুলের ভাই মুক্তি শেখ বাদী হয়ে মেলান্দহ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে মেলান্দহ থানা পুলিশ সাধুপুর গ্রামের শরাফত আলীর ছেলে বাদশা মন্ডল (৩০), তয়েজ মন্ডলের ছেলে শরাফত আলী ফেকু (৫৫), লাল মিয়ার স্ত্রী শেফালী বেগম (৩৫) ও সরাফত আলীর স্ত্রী সফুরা খাতুনকে (৪০) গ্রেফতার করে। মেলান্দহ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, রাতেই অভিযান চালিয়ে চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর