মঙ্গলবার, ২০ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা

দুই স্থানে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ৩

প্রতিদিন ডেস্ক

ময়মনসিংহ ও কক্সবাজারে কথিত বন্দুকযুদ্ধে গতকাল তিনজন নিহত হয়েছেন। র‌্যাব জানিয়েছে, নিহত দুজন দুষ্কৃতকারী এবং একজন ডাকাত। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুজন অজ্ঞাত ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। গত রবিবার রাত ৩টার দিকে উপজেলার রাওনা ইউনিয়নের ভরাইল গ্রামে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে র‌্যাব জানিয়েছে। র‌্যাব আরও জানায়, এই বন্দুকযুদ্ধের সময় র‌্যাবের দুই সদস্যও আহত হন। র‌্যাবের দাবি, অজ্ঞাত এই দুই ব্যক্তি দুষ্কৃতকারী। ঘটনাস্থল থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, ইয়াবা, রামদা, ছুরিসহ বেশ কিছু আলামত উদ্ধার করা হয়েছে। র‌্যাব-১৪-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল আবু নাঈম মো. তালাত জানান, র‌্যাব সদস্যরা নিয়মিত দিচ্ছিল। এসময় ওই এলাকায় অবস্থান করা একদল দুষ্কৃতকারী টহল টিমকে লক্ষ্য করে গুলি করে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। পরে দুষ্কৃতকারীরা পালিয়ে গেলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ওই দুজনকে পাওয়া যায়। তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থলে তল্লাশি করে আহত অবস্থায় দুই দুষ্কৃতকারীকে উদ্ধার করে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। নিহতদের পরিচয় বিকাল পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

কক্সবাজার : কক্সবাজারের উখিয়া কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডাকাত দলের প্রধান করিম উল্লাহ (৩২) ওরফে কলিমুল্লাহ র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে দুটি অস্ত্র ও চার রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। গতকাল ভোররাতে কুতুপালংয়ের লম্বাশিয়া ক্যাম্পে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে জানান র‌্যাব-১৫ এর উপ-অধিনায়ক তানভীর হাসান। নিহত রোহিঙ্গা ডাকাত করিমুল্লাহ লম্বাশিয়া ক্যাম্পের নীর আহমেদের ছেলে। তানভীর হাসান বলেন, কুতুপালং ক্যাম্প এলাকায় একটি রোহিঙ্গা ডাকাত দল অবস্থান করছে এমন খবরে অভিযানে যায় র‌্যাব-১৫। এ সময় টের পেয়ে ডাকাত দল গুলিবর্ষণ করলে আত্মরক্ষার্থে আমাদের সদস্যরাও গুলি চালায়। পরে ওই স্থান তল্লাশি করে দুটি অস্ত্র- চার রাউন্ড গুলি ও ডাকাত সরদার করিমুল্লাহর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।