শিরোনাম
বুধবার, ১০ জানুয়ারি, ২০২৪ ০০:০০ টা

জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন ফির ৩৩ লাখ টাকা আত্মসাৎ দুদকে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন ফির প্রায় ৩৩ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের এক ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল দুদকের নারায়ণগঞ্জ সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে সংস্থাটির সহকারী পরিচালক মনোয়ারুল ইসলাম মামলাটি করেন। দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) আকতারুল ইসলাম জানান, মামলায় আসামিরা হলেন নারায়ণগঞ্জের বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহম্মেদ, দাউদপুর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব শামিম মিয়া ও বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সচিব মোহাম্মদ ইউসুফ। মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে জালজালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে ক্ষমতার অপব্যবহার করে বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন ফি বাবদ আদায় করা ৩৩ লাখ ৭২ হাজার টাকা সরকারি ব্যাংক হিসাবে জমা দেননি। এ ছাড়া তারা জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে বন্দর ইউনিয়ন পরিষদে একই ব্যক্তির নামে দুটি জন্মনিবন্ধন আইডি তৈরি করেন।

দুদকের অনুসন্ধানে পাওয়া যায়, শামিম মিয়া ২০১৫-১৬ অর্থবছরে বন্দর ইউনিয়ন পরিষদে সাচিবিক দায়িত্ব পালনের সময় ৭ লাখ ৭৩ হাজার ৩৮০ টাকা এবং মোহাম্মদ ইউসুফ ২০১৬-১৭ অর্থবছরে সাচিবিক দায়িত্ব পালনের সময় ১৪ লাখ ৩৩ হাজার ৭২০ টাকা সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করেন। এ ছাড়া ২০১৭ সালের ১ জুলাই থেকে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১১ লাখ ২৭ হাজার ৪৭৫ টাকা আত্মসাৎ করেন। বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহম্মেদ ২০১৭ সালের ১৪ ডিসেম্বর থেকে ২০১৮ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত আদায় করা ৩৭ হাজার ৪২৫ টাকা আত্মসাৎ করেন। দুদক বলছে, একই ব্যক্তির নামে দুটি জন্মনিবন্ধন আইডি তৈরি করে একটির সনদ সরবরাহ করা হয় এবং অন্য আরেকটি সনদ সরবরাহের তারিখের স্থলে এন/এ লিখে সংরক্ষণ করা হয়। অন্যদিকে কিছু কিছু জন্মনিবন্ধনে পূর্ণ ঠিকানা ব্যবহার না করে শুধু জেলার নাম লেখা রয়েছে। এসব ঘটনার সময় সাচিবিক দায়িত্বে থেকে শামিম মিয়া এবং মোহাম্মদ ইউসুফ জালিয়াতি করেছেন। আর নিবন্ধক হিসেবে চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহম্মেদ স্থানীয় সরকার আইন অমান্য করেছেন।

সর্বশেষ খবর