Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ মে, ২০১৯ ১৪:৪০

যেখানে মুখ থুবড়ে পড়েছে মোদির বিজেপি!

অনলাইন ডেস্ক

যেখানে মুখ থুবড়ে পড়েছে মোদির বিজেপি!
নবীন পট্টনায়েক

গোটা ভারতে মোদির বিজেপির ঝড় উঠলেও তা উড়িষ্যা উপকূলে গিয়ে যেন মুখ থুবড়ে পড়েছে। বিজেপি বাহিনীকে আটকে এই নিয়ে পরপর পাঁচবার উড়িষ্যায় ক্ষমতায় এল বিজু জনতা দল। লোকসভা নির্বাচনের পাশাপাশি বিধানসভা নির্বাচনও হয় উড়িষ্যায়।

রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত চূড়ান্ত ফল প্রকাশিত না হলেও সেখানে ১৪৬ আসনের মধ্যে ১১২টিতেই এগিয়ে নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল।

এদিকে লোকসভা নির্বাচনে ২১টি আসনের মধ্যে উড়িষ্যায় বিজু জনতা দল পেয়েছে ১২টি। ৮টি পেয়েছে বিজেপি। বাকি আসনটি পেয়েছে কংগ্রেস।

বাবা বিজু পট্টনায়েকের উত্তরসূরী হিসেবে সম্পূর্ণ সফল নবীন ইতোমধ্যেই উড়িষ্যায় সবচেয়ে বেশিদিন ক্ষমতায় থাকা মুখ্যমন্ত্রীর তকমা পেয়ে গেছেন। ২০০০ সালে উড়িষ্যায় মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসেন তিনি।

তার বিরুদ্ধে চিট ফান্ড কেলেঙ্কারি থেকে শুরু তরে খনি দুর্নীতির মতো একাধিক অভিযোগ থাকলেও উড়িষ্যার সাধারণ মানুষের মধ্যে তার জনপ্রিয়তা নিয়ে কোনও প্রশ্ন নেই। বিশেষ করে তার এক টাকা কেজি চাল এবং পাঁচ টাকার খাদ্য প্রকল্প অত্যন্ত জনপ্রিয়। এই জনপ্রিয়তায় ভর করেই মোদি-ঝড় আটকে উড়িষ্যায় অবিসংবাদী নবীন পট্টনায়েক। 

তিনি একাধারে লেখক, শিল্পরসিক এবং প্রখর রাজনীতিবিদ। তার হালকা হাসির আড়ালে যে রাজতৈনিক মন লুকিয়ে রয়েছে তা ঘনিষ্ঠজনেরা ভালোই জানে।

১৯৯৭ সালের উপ-নির্বাচনে উড়িষ্যার আসকা আসন থেকে জিতে লোকসভায় যান নবীন। ১৯৯৮ সালে বিজেপির সঙ্গে জোট গড়ে অটল বিহারী বাজপেয়ীর মন্ত্রিসভায় যোগ দেন তিনি। 

২০০৯ সালে অবশ্য এনডিএ থেকে বেরিয়ে আসেন তিনি। এর ফলে তার সেকুলার ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হয়।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য