Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৭ জুন, ২০১৯ ১৪:৩৭
আপডেট : ২৭ জুন, ২০১৯ ১৪:৩৯

হাইকোর্টের বিস্ময় প্রকাশ

'মানুষটাকে প্রকাশ্যে কোপালো, কেউ এগিয়ে এলো না'

অনলাইন ডেস্ক

'মানুষটাকে প্রকাশ্যে কোপালো, কেউ এগিয়ে এলো না'

বরগুনা সরকারি কলেজ এলাকায় প্রকাশ্যে স্ত্রীর সামনে স্বামী নেয়াজ রিফাত শরিফকে (২৫) কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন আদালত। আজ বৃহস্পতিবার ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল বিষয়টি আদালতের নজরে আনলে আদালত বিস্ময় প্রকাশ করেন।

আদালত বলেন, একটা মানুষকে প্রকাশ্যে কোপানো হলো, কিন্তু কেউ এগিয়ে এলো না? সবাই দাঁড়িয়ে ভিডিও করলেন, কিন্তু কেউ এগিয়ে আসলেন না? এটা জনগণের ব্যর্থতা। 

আদালত আরও বলেন, সবাই এগিয়ে আসলে তো খুনিরা সাহস পেত না। তবে খুনিরা পাওয়ারফুল বলে কেউ এগিয়ে আসেনি বলেও মন্তব্য করেন আদালত।

এ ঘটনায় বরগুনার ডিসি ও এসপিসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কী কী পদক্ষেপ নিয়েছে তাও জানতে চেয়েছেন আদালত।

বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এ আদেশ দেন।

আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস সকালে আদালতে বলেন, ‘এমন অপরাধের ঘটনার বিচার যদি কোনো কারণে বিলম্ব হয় ও বিচারহীন হয়, তা হলে আরও এমন ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থাকে। তবে বিচার হবে আশা করছি।’

আদালত বলেন, ‘সবাই দাঁড়িয়ে দেখেছে, কেউ প্রতিবাদ করল না। পাঁচজন মানুষ অন্তত এগিয়ে আসলে হয়তো তারা সাহস পেত না। হয়তো তারা (দুর্বৃত্তরা) ক্ষমতাবান, হয়তো মানুষ ভয়ে এগিয়ে আসেনি।’

এ সময় আদালত জানতে চান, মামলা হয়েছে কিনা? উপস্থিত এক আইনজীবী বলেন, নিহত রিফাতের বাবা ১২ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত পাঁচ থেকে ছয়জনকে আসামি করে বরগুনা সদর থানায় হত্যা মামলা করেন।

এরপর আদালত আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এবিএম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাসারকে বরগুনার ডিসি ও এসপির কাছ থেকে এ বিষয়ে জেনে হাইকোর্টকে জানাতে বলেন।

নিহত রিফাত শরীফ (২৩) বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের বড় লবণগোলা গ্রামের দুলাল শরীফের ছেলে। মা-বাবার একমাত্র সন্তান ছিলেন রিফাত। বিয়ে করেছিলেন মাত্র দুই মাস আগে। হামলার পর গুরুতর অবস্থায় রিফাতকে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রক্তক্ষরণ বন্ধ না হলে তাকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

জানা যায়, বুধবার সকালে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে স্ত্রীর সামনে তার স্বামী নেয়াজ রিফাত শরিফকে কুপিয়ে জখম করে দুই সন্ত্রাসী। এসময় ওই নববধূ ও এক যুবক বাধা দিয়েও সন্ত্রাসীদের হাত থেকে রক্ষা করতে পারেননি। 

হামলার পর শরিফকে গুরুতর আহতবস্থায় প্রথমে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর আশঙ্কাকাজনক অবস্থায় তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ভর্তির এক ঘণ্টা পর বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে শরিফের মৃত্যু হয়।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য