Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ জুলাই, ২০১৯ ১৯:২৯
আপডেট : ১১ জুলাই, ২০১৯ ১৯:৩০

নোটিশটি নিয়ে আলোচনা না হলে সংসদ গরিব হবে: মেনন

নিজস্ব প্রতিবেদক

নোটিশটি নিয়ে আলোচনা না হলে সংসদ গরিব হবে: মেনন

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে এ বিষয়ে সংসদে আলোচনার দাবি জানিয়ে কার্যপ্রণালী বিধির ৬৮ বিধিতে দেওয়া নোটিশের জবাব না পেয়ে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ১৪ দলীয় মহাজোটের শরিক ও বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। এ সময় তিনি বলেন, আমি এর আগে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে সংসদে ৬৮ বিধিতে একটি নোটিশ দিয়েছিলাম। সেদিন আপনি (ডেপুটি স্পিকার) বলেছিলেন নোটিশটি স্পিকারের বিবেচনাধীন রয়েছে। আজকে সংসদের শেষ দিন, এটি কার্য তালিকায় আসেনি। এটা কি বাতিল করা হয়েছে সেটাও জানতে পারিনি। কার্যপ্রণালী বিধির ৬৮ বিধি অনুযায়ী বিলটি জানার অধিকার আমার রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সংসদের বৈঠকে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় সংসদের বৈঠকের সভাপতি ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়া বলেন, বিলটি স্পিকারের বিচেনাধীন রয়েছে, আলোচনা হয়নি বলে যে হবে না তা কিন্ত নয়। অবশ্য পরে তিনি সংসদে বিএনপির হারুনুর রশিদ, ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানার আনা মুলতবি প্রস্তাব কার্যপ্রণালী বিধির সাথে সঙ্গতিপূর্ণ নয় বলে গ্রহণ করা হয়নি। এছাড়া স্পিকার মহোদয় অপর নোটিশগুলিও গ্রহণ করেননি বলে সংসদে জানান।

এর আগে রাশেদ খান মেনন বলেন, আমরা বকা-উল্লা, আর উনারা শুনা-উল্লা, আর এই সংসদ হচ্ছে গরিবুল্লা। এই নোটিশে যদি আলোচনা না হয় সংসদ আরও গরিবুল্লা হবে বলে আমার ধারণা। এ সময় তিনি উল্লেখ করেন, যেদিন নোটিশটি দিচ্ছিলাম, সেদিন সংসদ সদস্য মঈনুদ্দিন খান বাদল বলেছিলেন, আপনি খামখা এটা ইনসিস্ট করেছেন। ইনসিস্ট করে লাভ নেই। কারণ, আমরা হচ্ছি সব বকা-উল্লা আর ওনারা হচ্ছে শোনা-উল্লা আর এই সংসদ হচ্ছে গরিবুল্লা। সে কথাটাই সঠিক হয়, যদি সংসদে নোটিশটি নিয়ে আলোচনাটা না হয় সংসদ আরও গরিব হবে বলে আমার ধারণা।

এ সময় ডেপুটি স্পিকার বলেন, আপনারা শুধু বকা-উল্লা বকাই নন, আমরা শুধু শোনা-উল্লা শোনা নই। আপনারা বক্তব্য রাখেন সে বিষয়ে সরকার কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়। আপনার ৬৮ বিধির নোটিশটি স্পিকারের বিবেচেনাধীন আছে, এটা যে বিবেচনা করা হবে না-এমন তো কোন কথা নেই। বিষয়টি আপনাকে পরে অবহিত করব।


বিডি-প্রতিদিন/১১ জুলাই, ২০১৯/মাহবুব


আপনার মন্তব্য