শিরোনাম
প্রকাশ : ৯ মার্চ, ২০২১ ১০:১৫
প্রিন্ট করুন printer

অবিশ্বাস্য দামে তরঙ্গ নিলাম জিতল গ্রামীণফোন, এ ধরনের প্রতিযোগিতা দেশে এই প্রথম

অনলাইন ডেস্ক

অবিশ্বাস্য দামে তরঙ্গ নিলাম জিতল গ্রামীণফোন, এ ধরনের প্রতিযোগিতা দেশে এই প্রথম

অবিশ্বাস্য দামে স্পেকট্রাম বা তরঙ্গ নিলাম জিতে নিল দেশের শীর্ষ স্থানীয় মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন।

সোমবার রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে মোবাইল ফোন অপারেটরদের জন্য এই তরঙ্গ নিলাম অনুষ্ঠিত হয়। এতে দেশের চারটি অপারেটর অংশ নিলেও লড়াই জমে উঠে গ্রামীণফোন ও রবি আজিয়াটা লিমিটেডের মধ্যে। 

কেউ কাউকে ছাড় দেবে না— এমন মনোভাবে দুপুর দেড়টা থেকে রাত পৌনে ৯টা পর্যন্ত এ নিলাম চলে। তরঙ্গের দাম অবিশ্বাস্য রকম বাড়তেই থাকে। ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের যে পাঁচ মেগাহার্জ তরঙ্গের ভিত্তিমূল্য ছিল মেগাহার্জপ্রতি ২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, রাত পৌনে ৯টায় তা ৪৬.৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছে দিয়ে জিতে যায় গ্রামীণফোন। তরঙ্গ নিলাম নিয়ে মোবাইল অপারেটরদের মধ্যে এ ধরনের প্রতিযোগিতা দেশে এই প্রথম।

অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, বিটিআরসি চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদারসহ অপারেটর প্রতিষ্ঠানগুলোর নির্বাহী কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। বিটিআরসি স্পেকট্রাম বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শহিদুল আলম নিলাম পরিচালনা করেন।

বেলা ১১টায় দেশের চার মোবাইল অপারেটরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে শুরু হয় টেলিযোগাযোগ খাতের বহুল আলোচিত এ নিলাম অনুষ্ঠান। নিলামে ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের সব ব্লক এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের তিনটি ব্লক বিক্রি হয়ে গেলেও ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের ৫ মেগাহার্জের শেষ একটি ব্লকের নিলাম লড়াই জমে ওঠে গ্রামীণফোন ও রবির মধ্যে। এ ব্লকের নিলাম প্রক্রিয়ার শুরুতেই সরে আসে বাংলালিংক। আর বিকাল ৪টার দিকে সরে যায় টেলিটক।

বিটিআরসি জানায়, এবারের নিলামে ভিত্তিমূল্য ধরা হয় ২০১৮ সালের নিলামের বিক্রয়মূল্য অনুযায়ী ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের ১ মেগাহার্জ তরঙ্গমূল্য ১৫ বছরের জন্য ৩১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার হারে এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের ১ মেগাহার্জ তরঙ্গ মূল্য ১৫ বছরের জন্য ২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার হারে। ২০১৮ সালের নিলামের তরঙ্গ অপারেটরদের চাহিদা অনুযায়ী তাদের ২-জি বা ৩-জি অথবা ৪-জি লাইসেন্সের মেয়াদে বরাদ্দ গ্রহণের সুযোগ রাখা হয়েছিল। 

এবারের নিলামে প্রাপ্ত তরঙ্গ বরাদ্দের তারিখ থেকে ৫.৫৯ বছর মেয়াদের জন্য ব্যবহার করা যাবে এবং প্রযোজ্য চার্জের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ভ্যাট যোগ করে সর্বমোট চার্জের ২৫ শতাংশ আগামী ২২ মার্চের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। এই চার্জ পরিশোধের পর সাময়িক তরঙ্গ বরাদ্দপত্র জারি করা হবে। তরঙ্গ বরাদ্দপত্র জারির তারিখ থেকে প্রতি এক বছর অন্তর বার্ষিক ১৫ শতাংশ হারে এবং  বাকি ৭৫ শতাংশ চার্জ পাঁচটি কিস্তিতে পাঁচ বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। নিলামে ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে ৭.৪ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে ২০ মেগাহার্জ—মোট ২৭.৪ মেগাহার্জ তরঙ্গের  নিষ্পত্তি হয়। এ থেকে সরকারের আয় হবে ভ্যাটসহ প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা।

প্রায় ১২ ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত এ নিলামে গ্রামীণফোন ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড থেকে প্রতি মেগাহার্জ ৩১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দামে ০.৪ মেগাহার্জ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড থেকে প্রতি মেগাহার্জ ২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দামে পাঁচ মেগাহার্জ এবং প্রতি মেগাহার্জ ৪৬.৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দামে পাঁচ মেগাহার্জ তরঙ্গ বরাদ্দ পেয়েছে। ফলে ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে গ্রামীণফোনের বর্তমান তরঙ্গ ১৯.৬ মেগাহার্জ থেকে ২০ মেগাহার্জ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে গ্রামীণফোনের বর্তমান তরঙ্গ ১০ মেগাহার্জ থেকে ২০ মেগাহার্জে উন্নীত হল। 

রবি ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড থেকে ২.৬ মেগাহার্জ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড থেকে প্রতি মেগাহার্জ ২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দামে পাঁচ মেগাহার্জ তরঙ্গ বরাদ্দ পেয়েছে। এতে ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে রবির বর্তমান তরঙ্গ ১৭.৪ মেগাহার্জ থেকে ২০ মেগাহার্জে এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে রবির বর্তমান তরঙ্গ ১০ মেগাহার্জ থেকে ১৫ মেগাহার্জে উন্নীত হল।

বাংলালিংক ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড থেকে ৪.৪  মেগাহার্জ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড থেকে ৫ মেগাহার্জ তরঙ্গ বরাদ্দ পেয়েছে। ফলে ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে বাংলালিংকের বর্তমান তরঙ্গ ১৫.৬ মেগাহার্জ থেকে ২০ মেগাহার্জে এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে বাংলালিংকের বর্তমান তরঙ্গ ১০ মেগাহার্জ থেকে ১৫ মেগাহার্জে উন্নীত হল। 

টেলিটক ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক নিলামে অংশগ্রহণ করেও শেষ পর্যন্ত কোনো তরঙ্গ কিনতে পারেনি। এ অবস্থায় ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে টেলিটকের বর্তমান তরঙ্গ ১০ মেগাহার্জ ব্যবহার করেই তাদের সেবা প্রদান কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর