শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ অক্টোবর, ২০২০ ১৬:৩২
আপডেট : ২৫ অক্টোবর, ২০২০ ১৬:৩৪

জন্ম থেকেই একটা মেয়ে পতিতা হয়ে জন্মায় না

শায়লা কবির

জন্ম থেকেই একটা মেয়ে পতিতা হয়ে জন্মায় না
শায়লা কবির

জন্ম থেকেই একটা মেয়ে পতিতা হয়ে জন্মায় না, তার জীবনেও আর সব মেয়ের মতোই প্রেম ভালোবাসা আসে প্রাকৃতিক নিয়মেই এবং প্রতিটি মানুষের মনেই মায়া, মমতা, ভালোবাসার মতো স্বর্গীয় অনুভূতি সৃষ্টিকর্তা দিয়ে দিয়েছেন উদারভাবে।

প্রত্যেকটি মানুষের জীবনে ভালোবাসা এবং ভালোবাসার মতো মনের মানুষও থাকে এবং অবশ্যই একজন পতিতার পরিচয় প্রথমেই সে পতিতা নয়, তার প্রথম পরিচয় সে একজন মানুষ। দ্বিতীয়ত, সে একজন নারী এবং তারপর তার অন্যান্য আর সব পরিচয়। আগে তাকে মানুষ ভাবুন তাহলেই বুঝতে পারবেন পৃথিবীর সব মানুষের মতোই ওদের মনও সব রকম অনুভূতি দ্বারা আবর্তিত এবং জগতের স্বাভাবিক নিয়মেই পরিচালিত।

এই একই কথা আমি আমাদের সমাজে যাদের হিজড়া বলা হয় তাদের সম্পর্কেও বলবো। আমি যখনই রাস্তা-ঘাটে কোনো হিজড়া দেখতে পাই নিজে থেকে এগিয়ে গিয়ে ওদের কুশলাদি জিজ্ঞেস করি। সামর্থ্য অনুযায়ী সহযোগিতা করার চেষ্টা করি। একবার একজন হিজড়ার চোখ ভিজে গিয়েছিল কাছে গিয়ে "কেমন আছেন?" জিজ্ঞেস করাতে। একদম শুদ্ধ উচ্চারণে বলেছিল, "হ্যাঁ আপা ভালো আছি, আপনি ভালো আছেন?"

তারপর চকচকে নতুন একটি নোট বের দিতেই (কত টাকার নোট সেটা উল্লেখ করা অপ্রয়োজন) চোখ ভিজে গেল হিজড়াটির। ওর চোখে জল দেখে আমারও কেন যেন চোখে জল এসে গেল। হয়তো ওর দৃষ্টিতে ফুটে ওঠা ওদের না পাওয়ার বেদনা, না পাওয়ার কষ্ট, যন্ত্রণা সব দেখতে পেয়েছিলাম সেই চাহনিতে যা আমি সব সময়ই ফিল করি ওদের জন্য।

আমি ওদের আমার মতো মানুষ ভাবি পতিতা বা হিজড়া নয়। কারণ সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টিকে অবজ্ঞা, অবহেলা এবং অসম্মান করার অধিকার আমাদের নেই এবং আমাদের সেই স্পর্ধা থাকাও উচিত নয়।
অপরাধকে-ঘৃণা-করুন-অপরাধীকে-নয়।

বিডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য