শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২৩:৪১

সোনা জিতে সালমাদের ইতিহাস

ক্রীড়া প্রতিবেদক

সোনা জিতে সালমাদের ইতিহাস

শেষ বলে হারের বহু ইতিহাস রয়েছে মাশরাফি, সাকিব, মুশফিকদের। বিপরীতে শেষ বলে বাধভাঙা উচ্ছ্বাসে মেতে উঠার রেকর্ড রয়েছে সালমা, নাহিদা, জাহানারা, ফারজানাদের। শেষ বলে ভারতকে হারিয়ে এশিয়া কাপের শিরোপা জিতেছিলেন সালমারা। এবার চ্যাম্পিয়ন হলেন এসএ গেমসে। ‘দ্বীপরাষ্ট্র’ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অবিশ্বাস্য এই জয়ে মহিলা ক্রিকেটে ইতিহাস লিখেছেন সালমা বাহিনী। গেমসে এই প্রথম ক্রিকেট যুক্ত হয়েছে। তাতেই বাজিমাত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। প্রথম আসরেই সোনা জিতেছে বাংলাদেশ। ফাইনালে ২ রানের শ্বাসরুদ্ধকর জয় পেয়েছে ‘দ্বীপরাষ্ট্র’ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। ফাইনাল হেরে রুপা পেয়েছে শ্রীলঙ্কা এবং ব্রোঞ্জ স্বাগতিক নেপাল। আজ পুরুষ ইভেন্টে সোনা জিততে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ক্রিকেট লড়াইয়ে নামবেন নাজমুল হাসান শান্ত, সৌম্য সরকাররা।

জয়ের জন্য শেষ ওভারে শ্রীলঙ্কার দরকার ছিল ৭ রান। বাংলাদেশের চাই ৩ উইকেট। টানটান উত্তেজনাকর মুহূর্তে মাথা ঠান্ডা রেখে অসাধারণ বোলিং করেন জাহানারা আলম। ৪ রান দেন মাত্র। শেষ বলে দরকার ছিল ৩ রান। জাহানারা কোনো রান দেননি এবং তার ওভারে রান আউট হয় ২টি। শেষ পর্যন্ত ৯২ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ৮৯ রান করে দ্বীপরাষ্ট্র। প্রথমে ব্যাট করে ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ৯১ রান করে বাংলাদেশ।      

ভারত নেই। নেই পাকিস্তান। দুই ক্রিকেট পরাশক্তির অনুপস্থিতিতে এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশই ছিল ফেবারিট। তবে ফেবারিটের তালিকায়ও ছিল শ্রীলঙ্কা। কিন্তু সালমা বাহিনী লিগ এবং ফাইনালে দাপুটে ক্রিকেট খেলে সোনা জিতে নেয়। লিগপর্বে নাহিদা আক্তারের দুরন্ত বোলিং ও ফারজানার দারুণ ব্যাটিংয়ে ৭ উইকেটের সহজ জয় তুলে নিয়েছিল। গতকাল ফাইনালে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয় শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত। লিগে ম্যাচ জিতেছিল টার্গেট তাড়া করে। গতকাল প্রথমে ব্যাট করে জয় পায় ২ রানে।

রান তুলতে কাল ঘাম ছুটেছিল সালমাদের। প্রতিপক্ষের বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের মুখে সর্বোচ্চ ২৯ রান করেন নিগার। ৩৮ বলের ইনিংসটিতে ছিল ২টি চার ও একটি ছক্কা। এছাড়া সানজিদা ১৫, ফাহিমা ১৫. মুর্শিদা ১৪ রান করেন। সালমা বাহিনীর পক্ষে সফল বোলার নিগার সুলতানা আবার ম্যাচসেরাও হন। ৪ ওভারের স্পেলে নাহিদা নেন ৯ রানের খরচে ২ উইকেট। প্রথম ম্যাচে ৩২ রানে নিয়েছিলেন ৪ উইকেট।     


আপনার মন্তব্য