শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ এপ্রিল, ২০২০ ২৩:৩৮

দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা হতাশার

ক্রীড়া ডেস্ক

দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা হতাশার

করোনাভাইরাসের জন্য জন্মদিন উদযাপন করেননি ক্রিকেটের জীবন্ত কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকার। আন্তজার্তিক ক্রিকেটে প্রথম ১০০ সেঞ্চুরি হাঁকানো টেন্ডুলকার জন্মদিন পালন না করে দুস্থ ও অসহায়দের পাশে দাঁড়িয়েছেন। করোনার ভয়ে বন্ধ হয়ে যাওয়া ক্রিকেটের জন্য হতাশ হয়ে পড়েছেন। তারচেয়েও বেশি হতাশ হয়েছেন, দর্শকশূন্য মাঠে খেলা আয়োজনের কথা শুনে। থেমে যাওয়া ক্রিকেটে প্রাণ আনতে অনেকেই দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা আয়োজনের মতো দিচ্ছেন। শচীন এটা মানতে পারছেন না। তিনি মনে করেন, দর্শকশূন্য মাঠে ম্যাচ ক্রিকেটারদের জন্য হতাশার। পিটিআই ইন্ডিয়াকে দর্শকশূন্য মাঠে খেলা নিয়ে শচীন বলেন, ‘দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে যে সব ক্রিকেটার খেলবেন, তাদের জন্য সেটা হবে হতাশার। দর্শকের প্রতিক্রিয়া একজন ক্রিকেটারকে আত্মবিশ্বাস জোগায়। একই কথা একজন বোলারের জন্যও।’

করোনাভাইরাসের প্রকোপ মারাত্মক আকার ধারণ করার আগে দর্শকশূন্য মাঠে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড একটি ওয়ানডে খেলেছিল। অনেকেই সে রকমটাই ভাবছেন এখন। কিন্তু শচীন সে পথে হাঁটতে রাজি নন। তিনি মনে করেন, দর্শক হচ্ছে খেলার প্রাণ, ‘যে কোনো খেলার অবিচ্ছেদ্য অংশ হচ্ছে দর্শক। দর্শক হচ্ছে খেলোয়াড়দের প্রাণ।’ একই সঙ্গে তিনি জানান, খেলা মাঠে ফিরলেও করোনাভাইরাসের জন্য শঙ্কিত থাকবেন ক্রিকেটাররা। কারণ, মুখের থুতু কিংবা লালা ব্যবহার করার ক্ষেত্রে সবসময়ই ভয়ে থাকবে।


আপনার মন্তব্য