শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ মার্চ, ২০২১ ০৩:০০
প্রিন্ট করুন printer

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে ভারতের পরাজয়

অনলাইন ডেস্ক

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে ভারতের পরাজয়
সংগৃহীত ছবি

রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজে ভারতের জয়ের রথ থামাল ইংল্যান্ড। মঙ্গলবার (৯ মার্চ) টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করে কেভিন পিটারসেনের ৩৭ বলের ৭৫ রানের ঝড়ো ইনিংসে ভর করে ৭ উইকেটে ১৮৮ রান করে ইংল্যান্ড। জবাবে ৭ উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত ১৮২ রানে থামে ভারতের ইনিংস। 

এর ফলে রায়পুরে রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজে শ্বাসরুদ্ধকর নবম ম্যাচে শেষ পর্যন্ত পিটারসেনদের কাছে মাত্র ৬ রানে হেরেছে শচীনের ভারত। এই জয়ের ফলে সিরিজে নিজেদের দ্বিতীয় জয় তুলে নিলো ইংল্যান্ড। একই সঙ্গে টানা তিন জয়ের পর আসরে প্রথমবারের মত হারের স্বাদ পেলো শচীন-শেবাগরা।

শহীদ বীর নারায়ণ সিং স্টেডিয়ামে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে এসে উড়ন্ত সূচনা করেন ইংল্যান্ড লিজেন্ডসের অধিনায়ক কেভিন পিটারসেন। নান্দনিক ব্যাটিং প্রদর্শনে আসরে টানা দ্বিতীয় ফিফটি তুলে নেন সাবেক তারকা ইংলিশ ব্যাটসম্যান। ইরফান পাঠানের বাউন্সারে আউট হওয়ার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৩৭ বলে ৭৫ রান। তার এই মারমুখী ইনিংসে ছিলো ৬টি চার এবং ৫টি ছয়ের মার। পিটারসেন ফেরার পর দ্রুত আরও কিছু উইকেট হারিয়ে এক সময় দুইশোর সম্ভাবনা জাগানো ইংল্যান্ড লিজেন্ডস শেষ পর্যন্ত ১৮৮ রান সংগ্রহ করে নির্ধারিত ২০ ওভারে। পিটারসনের ৭৫ ছাড়াও ড্যারেন ম্যাডি ২৯, স্কোফিল্ড ১৫, হ্যামিল্টন ১৫ রান করেন।

রান তাড়া করতে নেমে ১৭ রানে বীরেন্দ্রর শেবাগ, মোহাম্মদ কাইফ ও শচীন টেন্ডুলকারের উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে যায় ভারত। এরপর দলীয় ৩৪ ও ৫৬ রানে ফেরেন সুব্রমণিয়াম বদ্রীনাথ ও যুবরাজ সিং।  ৫৬ রানে ৫ উইকেট পতনের পর ভারতীয় দলের হাল ধরেন ইরফান পাঠান ও ইউসুফ পাঠান সহোদর।  ষষ্ঠ উইকেটে তারা গড়েন ৪৩ রানের জুটি।  দলীয় ৯৯ রানে ফেরেন ইউসুফ পাঠান। 

এরপর দ্রুত ফিরেন নোমান ওঝাও। এরপর যখন মনে হচ্ছিলো ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছে ভারত, তখনই ব্যাট হাতে ঝড় তুলেন ইরফান পাঠান এবং মনপ্রীত গনি। অষ্টম উইকেট জুটিতে এ দুজন মাত্র ২৬ বলে গড়েন ৬৩ রানে দুর্দান্ত পার্টনারশিপ। তবে তাও যথেষ্ট হয়নি ভারত লিজেন্ডসের জয়ের জন্য। শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৯ রানের প্রয়োজন থাকলেও শেষ পর্যন্ত ৬ রানে হেরে যায় ভারত। ইরফান পাঠান ৩৪ বলে ৬১ এবং মনপ্রীত গনি ১৬ বলে ৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন।


বিডি-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ