শিরোনাম
প্রকাশ : ১৫ এপ্রিল, ২০২১ ১৩:৩৪
প্রিন্ট করুন printer

মুম্বাইয়ের কাছে কলকাতার হার, থামছেই না রাসেল-কার্তিকের ব্যাটিং বিতর্ক

অনলাইন ডেস্ক

মুম্বাইয়ের কাছে কলকাতার হার, থামছেই না রাসেল-কার্তিকের ব্যাটিং বিতর্ক

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের কাছে কলকাতা নাইট রাইডার্সদের লজ্জাজনক হারে আন্দ্রে রাসেল ও দীনেশ কার্তিকের ব্যাটিং নিয়ে প্রশ্ন তুললেন বীরেন্দ্র শেবাগ। শেষ পাঁচ ওভারে ৩১ রান তুলতে না পারায় আন্দ্র রাসেল ও দীনেশ কার্তিককে কাঠগড়ায় তুললেন তিনি।

গত মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) চিপকে মুম্বাই ব্যাটসম্যানদের ১৫২ রানে অলআউট করে জয়ের স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিল কেকেআর। এই স্বপ্ন আরও সত্যি হতে চলেছিল নাইটদের দুই ওপেনার নীতিশ রানা ও শুভমন গিলের দুরন্ত পার্টনারশিপ। ৮.৫ ওভারে ৭২ রান যোগ করেন তারা। গিল ২৪ বলে ৩৩ রান করে আউট হন। গিল আউট হওয়ার পর একা দায়িত্ব নেন রানা। ১৫ ওভার পর্যন্ত ক্রিজে থেকে নাইটদের জয়ের পথে এগিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। প্রথম ম্যাচে ৮০ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলা বাঁ-হাতি ওপেনার ৪৭ বলে ৫৭ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন। কিন্তু বাকিদের ব্যর্থতায় কেকেআরের মুম্বাইকে হারানো স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যায়।

নাইটদের জয়ের পথ তৈরি করে দিয়েছিলেন দুই ওপেনার। সেই পথেই নাইটদের এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেননি বাকিরা। শেষ পাঁচ ওভারে নাইটদের জয়ের জন্য দরকার ছিল মাত্র ৩১ রান। হাতে ৪ উইকেট। এই অবস্থায় স্বপ্নেও ম্যাচ জয়ের কথা ভাবেনি মুম্বাই। কারণ তখন ক্রিজে ছিলেন সাবেক অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক ও অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। প্যাড পরে তৈরি রাসেল৷ কিন্তু এই ম্যাচও জিততে পারেনি কেকেআর। সাকিব ৯ বলে ৯ রান করে আউট হলে ব্যাট করতে নামেন আন্দ্রে রাসেল। রাসেল ১৫ বলে ৯ রান করে আউট হন। আর কার্তিক ১১ বলে ৮ রানে অপরাজিত থাকেন।  শেষ পাঁচ ওভারে তিন উইকেট হারিয়ে মাত্র ২০ রান তুলতে সক্ষম হয় কলকাতা।
 
নাইটদের এই হারকে লজ্জাজনক অ্যাখ্যা দিয়ে রাসেল ও কার্তিকের ব্যাটিং নিয়ে প্রশ্ন তোলেন শেবাগ। সাবেক এই ভারতীয় ওপেনার বলেন, প্রথম ম্যাচে জেতার পর ইয়ন মর্গ্যান বলেছিল, আমরা এরকম দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে খেলতে চাই। কিন্তু দেখে মনে হল না, আন্দ্রে রাসেল ও দীনেশ কার্তিক ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে ব্যাট করতে নেমেছিল। ওরা ভেবেছিল শেষ পর্যন্ত থেকে ম্যাচ জেতাব। কিন্তু তেমনটা হয়নি। তবে তাদের আগে সাকিব আল হাসান, ইয়ন মর্গ্যান, শুভমন গিল এবং নীতিশ রানা প্রত্যেকেই ইতিবাচক ব্যাটিং করেছিল।
 
সাকিব আউট হওয়ার পর রাসেল যখন ক্রিজে আসেন, তখন নাইটদের জেতার জন্য দরকার ছিল ২৪ বলে ৩০ রান। হাতে ৫ উইকেট। ক্রুণাল পান্ডিয়ার বলে দু’বার জীবন ফিরে পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি রাসেল। ১৫ বলে ৯ রান করে শেষ ওভারে যখন ফিরছেন, তখন নাইটদের পরাজয় একরকম নিশ্চিত হয়ে গেছে। সাবেক অধিনায়ক কার্তিক শেষ পর্যন্ত ক্রিজে থাকলেও ১০ রানে হারে কলকাতা।

 

বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ 

এই বিভাগের আরও খবর