শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ আগস্ট, ২০১৯ ১০:১৯

সড়ক নয় যেন জলাধার!

সাইফুল ইসলাম বেগ, বিশ্বনাথ (সিলেট):

সড়ক নয় যেন জলাধার!

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার সবক’টি প্রধান প্রধান সড়ক চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। পিচঢালা উঠে গিয়ে সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্তের। বৃষ্টিতে এসব গর্ত ডুবলে বোঝার উপায় নেই, এটি সড়ক না জলাধার। 

গর্তগুলো এতটাই গভীর হয়েছে যে গাড়ি উল্টে যাওয়ার উপক্রম হয়। তবুও নেই মেরামতের কোন উদ্যোগ। বছরের পর বছর এ অবস্থা চলতে থাকলেও প্রতিকারের উদ্যোগ নিচ্ছে না কেউই। বেড়েই চলেছে জনদুর্ভোগ-ভোগান্তি। এ কারণে সংশ্লিষ্টরা দায়ী করছেন রাস্তার পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা বন্ধ করে দেয়াকে।

সড়গুলোর এ ‘বেহাল দশা’র কারণে ইতিপূর্বে বাস ধর্মঘট করেন মালিক ও শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা। চরম বিপাকে পড়েন দুই উপজেলার হাজার হাজার যাত্রী সাধারণ। সংস্কারের দাবিতে হয়েছে মানববন্ধন। সংশ্লিষ্টদের দেওয়া হয়েছে স্মারকলিপিও। তবুও নির্বাক তারা। এসব যেন দেখার কেউ নেই। ইতিপূর্বে কিছু গর্ত ইট, সুরকি ও বালু দিয়ে ভরাট করে দেয়া হলেও এখন পূণরায় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। 

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, বিশ্বনাথ বাজার থেকে জগন্নাথপুর সীমানা পর্যন্ত প্রধান সড়কেই ছোট-বড় গর্তের সংখ্যাই বেশি। বিশ্বনাথ বাইপাস সড়কেরও একই হাল। এছাড়াও যানচলাচলের অনুপযোগী সড়ক গুলোর মধ্যে রয়েছে, বিশ্বনাথ-হাবড়া-ছালিয়া সড়ক, বিশ্বনাথ-কুরুয়াবাজার-সরুয়ালা সড়ক, বিশ্বনাথ জানাইয়া-খাজাঞ্চি সড়ক, পীরেরবাজার কালভার্ট থেকে ধরারাই গাজীর মোকাম সড়ক, দশঘর মাচুখালি সড়ক , দৌলতপুর পূর্বের সড়ক, বাগিছা-কজাকাবাদ সড়ক, দশপাইকা-হাবড়া-বাগিছা সড়ক, রামপাশা বৈরাগী-সিংগেরকাছ সড়ক, গুলচন্দ-ভূরকি-মুন্সিরবাজার-বাংলাবাজার-সিংগেরকাছ সংযোগ সড়ক, রামপাশা-রাজাগঞ্জবাজার সড়ক, কালিগঞ্জ-মনাইকান্দি সড়ক, কালিগঞ্জ-দাউদপুর-সমসপুর স্কুল সড়ক, কালিগঞ্জ-বরইগাও-সদূরগাও সড়ক, উত্তর ধর্মদা সড়ক ও চান্দসীরকাপন সড়ক। 

গাড়ি চালকরা জানান, উপোস করে গাড়ি বন্ধ রেখে প্রতিবাদ করেছি। কোন সুফল পাইনি আমরা। আয় থেকে গাড়ি মেরামতের ব্যয়েই চলে যায় সিংগভাগ। এখন পেটের দায়ে ঝুঁকি নিয়ে রাস্তায় বের হই।

এসব পথে চলাচলকারী যাত্রীরা জানান, পথে পথে ভোগান্তির শিকার হয়েও সঠিক সময়ে তারা গন্তব্যে পৌঁছতে পারে না। ভাড়াও গুণতে হচ্ছে বেশি। 

উপজেলা প্রকৌশলী হারুনুর রশীদ বলেন, বেহাল সড়কের তালিকা উর্ধ্বতন অফিসে পাঠানো হয়েছে। আগামী মাসের মধ্যেই এর একটি ব্যবস্থা হবে। তবে, সড়ক রক্ষায় সবাইকে সচেতন হতে। ব্যবস্থা রাখতে হবে পানি নিস্কাশনের। 

এ বিষয়ে কথা হলে সিলেট-২ আসনের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খান বলেন, কাজ শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এগুলো সংস্কার করা হবে।


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর