শিরোনাম
প্রকাশ : ৩০ নভেম্বর, ২০১৯ ১৭:১০

শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিং করা ‘ধৃষ্টতা’

সিলেট ব্যুরো

শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিং করা ‘ধৃষ্টতা’
শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিং

মুসলমানদের শত বর্ষের ঐতিহ্যের স্মারক পুণ্যভূমি সিলেটের মাটিতে শাহী ঈদগাহ ময়দান। প্রতিবছর বিপুল সংখ্যক মুসল্লি ঐতিহ্যবাহী এ ময়দানে ঈদের নামাজ আদায় করতে আসেন। সিলেটবাসী তো বটেই, এ দেশের মুসলমানদের কাছে আলাদা গুরুত্ব রয়েছে এই ঈদগাহের। এই ঈদগাহে সিনেমার শুটিং করার বিষয়টিকে ‘ধৃষ্টতা’ বলে অভিহিত করেছেন বাংলাদেশ জাতীয় ইমাম সমিতি সিলেট মহানগরী শাখার নেতৃবৃন্দ। আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে সিনেমার শুটিংয়ের নিন্দাও জ্ঞাপন করেন তারা।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘বাংলাদেশের আধ্যাত্মিক রাজধানী সিলেটের শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিং করে ইসলাম ধর্মের প্রতি ধৃষ্টতা দেখালো একটি মহল। গতকাল (শুক্রবার) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ভাইরাল হওয়া একটি নিউজ দেখে থমকে যান ইমাম নেতৃবৃন্দ। সিলেটের শাহী ঈদগাহ একটি ঐতিহাসিক স্থান। যেখানে প্রতিকুল আবহাওয়া উপেক্ষা করে প্রতিবছর লক্ষাধিক মুসল্লি ঈদের নামাজ পড়তে আসেন। সরকারের এমপি মন্ত্রীগণও নামাজের পূর্বে মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে কল্যাণের কথা বলেন। বড় বড় জানাজার নামাজ শাহী ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হয়। এ সকল ধর্মীয় কাজ সম্পাদিত হওয়া এই ঐতিহাসিক ও পবিত্র শাহী ঈদগাহে সিনেমার শুটিং হয়েছে তা বিশ্বাস করা কঠিন হলেও একটি স্বার্থান্বেষী মহল পুলিশি প্রহরায় শুটিং করে ফেলেছে।’

এমন ‘গর্হিত কাজের’ সাথে যারা জড়িত তাদেরকে খুঁজে বের করে বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে কর্তৃপক্ষের প্রতি ইমাম নেতৃবৃন্দ আহ্বান জানান।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ‘সিলেটের শান্তিপ্রিয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে যারা এ কাজ করেছে তারা দেশ ও ধর্মের দুশমন। সিলেটের জনপ্রতিনিধিগণ আজ সিলেট নগরীকে আধুনিক নগরী গড়তে ব্যতিব্যস্ত হয়ে আছেন। অথচ শাহী ঈদগাহের মত একটি ঐতিহাসিক ধর্মীয় ও পবিত্র স্থান আজ যুবক-যুবতিরা আড্ডাখানায় পরিণত করেছে। এসব বেহায়াপনা শাহী ঈদগাহ এলাকা তথা সিলেটের মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে।’

বিবৃতিদাতারা হলেন- সভাপতি মাওলানা হাবীব আহমদ শিহাব, সেক্রেটারি মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, মাওলানা ক্বারি শহিদ আহমদ, মাওলানা শাহ আশরাফ আলী মিয়াজানি, মাওলানা আহমদ হোসাইন, মাওলানা মাসুক আহমদ সালামী, মাওলানা এখলাছুর রহমান, মাওলানা নূর আহমদ কাশেমী, মাওলানা বোরহান উদ্দিন, মাওলানা আব্দুস সালাম, মাওলানা হিফজুর রহমান, মুফতি আব্দুর রহমান শাহজাহান, মাওলানা আশরাফ উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য