২৮ অক্টোবর, ২০২১ ২১:৫৫

‌'ময়লা-আবর্জনা পড়ে থাকলে দায় কাউন্সিলরদের'

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

‌'ময়লা-আবর্জনা পড়ে থাকলে দায় কাউন্সিলরদের'

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, আমি ক্লিন সিটি দেখতে চাই। পরিচ্ছন্ন বিভাগে কয়েক হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী আছেন, তাদের তদারকি করছেন কাউন্সিলররা। তারপরও চট্টগ্রাম নগর পরিপূর্ণ ক্লিন সিটি হয়ে উঠতে পারেনি। কোনো কোনো স্থানে ময়লা-আবর্জনা পড়ে থাকতে দেখা যায়। এখন থেকে এর দায় বর্তাবে কাউন্সিলরদের ওপর। তাছাড়া নগরে আলোকায়নের বিষয়ে কোনো অজুহাত শুনতে চাই না। তার চুরি হয়েছে, বাল্ব নষ্ট হয়েছে- এসব ঠুনকো কারণ দাঁড় করানো যাবে না। আলোকায়নের ক্ষেত্রে কোনো ছাড় দেওয়া যাবে না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আন্দরকিল্লার নগর ভবনে কেবি আবদুস সাত্তার মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত চসিকের ষষ্ঠ পরিষদের নবম সাধারণ সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।   

চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহীদুল আলমের সঞ্চালনায় সাধারণ সভায় বক্তব্য রাখেন প্যানেল মেয়র মো. গিয়াস উদ্দিন, আফরোজা কালাম, সচিব খালেদ মাহমুদ, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম, মেয়রের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম প্রমুখ।    

মেয়র বলেন, নগরে সরকারি উন্নয়ন কর্মযজ্ঞ ঝুঁকিমুক্ত, নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও জনদুর্ভোগ এড়িয়ে কাজ তদারকি, সমন্বয় সাধনে চসিককে সম্পৃক্ত করতে হবে। কারণ নগরের যেকোনো কর্মকান্ডে জবাবদিহি ও দায়বদ্ধতার বিষয়টি অন্যান্য সেবা সংস্থার তুলনায় চসিকেরই সবচেয়ে বেশি।

নগরের চলমান উন্নয়ন কর্মকান্ড ও মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে সিডিএ, ওয়াসা, বিদ্যুৎসহ অন্যান্য সেবা সংস্থার বড় ধরনের যে সংশ্লিষ্টতা আছে সে তুলনায় চসিকের সম্পৃক্ততা সামান্য। তবে প্রকল্প বাস্তবায়নে চলমান কার্যক্রমের অনেক ক্ষেত্রেই নানা সমস্যা, ভোগান্তি এমনকি অনাকাঙ্খিত প্রাণহানি ঘটছে। এসবের দায় প্রকল্প বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষের হলেও সাধারণ মানুষের সমালোচনার তীর থাকে চসিকের দিকেই। কারণ চসিক কর্মপরিষদ নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের নিয়েই গঠিত।

বিডি প্রতিদিন/এএ

সর্বশেষ খবর