Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:২৯

চুরিতে ব্যর্থ হওয়ায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মারুফাকে খুন

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

চুরিতে ব্যর্থ হওয়ায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তা মারুফাকে খুন

বরিশাল নগরীর কাশিপুর উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের উপ-সহকারী মেডিকেল অফিসার মারুফা বেগম (৪১) হত্যার ঘটনায় মো. মহসিন শেখ (৩২) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পরে শনিবার বিকেলে মহসিনকে আদালতে সোপর্দ করার পর হত্যার দায় স্বীকার করে সে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে নগরীর লুৎফর রহমান সড়কের ভাড়া ফ্লাটে খুন হন তিনি। গত ১৭ এপ্রিল চট্টগ্রামের পতেঙ্গা এলাকা থেকে মারুফার দুটি মুঠোফোন ব্যবহারকারী মহসিন শেখকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মারুফাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে মহসিন। শনিবার এই তথ্য জানায় পুলিশ। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বিমান বন্দর থানার এসআই ফিরোজ আলম মুন্সী জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও বিভিন্ন আলামত দেখে ওই ফ্লাটে চুরি হয়েছিল বলে তারা প্রথম থেকেই ধারণা করে আসছিলেন। 

মহসিন পুলিশকে জানায়, সে ভোলায় শ্বশুর বাড়িতে থাকতো। ঘটনার আগের দিন ভোলা থেকে বরিশাল এসে একটি আবাসিক হোটেলে অবস্থান নেয় সে। পরদিন ২৯ এপ্রিল দিনের বেলায় নিহত মারুফা বেগমের ভাড়া ফ্লাটের আশপাশ ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে মহসিন। 

ওই দিন রাত ১ টার দিকে মারুফার ফ্লাটের পার্শ্ববর্তী নির্মাণাধীন ভবনের ছাদে শাবল নিয়ে অবস্থান নেয় সে। সেই ছাদ থেকে চুরি করার উদ্দেশ্যে সে মারুফার ফ্লাটের বেলকনিতে প্রবেশ করে। বেলকনির দরজা খোলা থাকায় সে মারুফার কক্ষে ঢুকে বিছানার পাশে শাবল রেখে চেয়ারের উপর থাকা ভেনিটিব্যাগ নিয়ে আবার পাশের বাসার ছাদে চলে যায়। 
সেখানে ভেনিটিব্যাগ খুলে ৩০-৪০ টাকা পেয়ে পুনরায় মহসিন মারুফার ঘরে থাকা স্টীল আলমীরা খুলে মূল্যবান মালামাল খুঁজতে থাকে। 

এ সময় শব্দ পেয়ে মারুফা বেগম জেঁগে উঠে চোর চোর বলে চিৎকার করতে থাকলে মহসিন তার মাথায় শাবল দিয়ে আঘাত করে। মারুফা গোঙ্গানী আর ও রক্তক্ষরণ দেখে মহসিন দ্রুত বেলকনি দিয়ে পাশের বাসার ছাদে চলে গিয়ে নির্মাণা আরেকটি ভবনে ফজরের আজান পর্যন্ত অবস্থান নেয়। তারপর আজানের সময়ে নির্মাণাধীন ভবন থেকে বের হয়ে লঞ্চে করে ভোলা চলে যায়।

তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় হত্যাকাণ্ডের প্রায় ৭ মাস পর অভিযুক্ত মহসিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সে পিরোজপুরের খানাকুনিয়ারী এলাকার মোস্তাফা শেখের ছেলে। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই ফিরোজ আলম জানান, শনিবার শেষ বিকেলে মহসিনকে আদালতে সোপর্দ করার পর হত্যার দায় স্বীকার করে সে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। পরে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন আদালত। 


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য