শিরোনাম
প্রকাশ : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৩:৩২
আপডেট : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৪:৫৭
প্রিন্ট করুন printer

রুম্পা ‘হত্যার’ বিচার দাবিতে আজও উত্তাল স্টামফোর্ড

অনলাইন ডেস্ক

রুম্পা ‘হত্যার’ বিচার দাবিতে আজও উত্তাল স্টামফোর্ড

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার ‘হত্যার’ বিচারের দাবিতে তৃতীয় দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন শিক্ষার্থীরা। ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থীরা রবিবার দুপুর ১২টায় ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে হাতে প্লাকার্ড নিয়ে সমাবেত হয়ে এ কর্মসূচি পালন করেন।

এ সময় অবস্থান কর্মসূচি থেকে বিচার দাবিতে ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ স্লোগানে উত্তাল হয়ে উঠে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীর স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস।

‘রুম্পা হত্যার বিচার চাই’, ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিজ’, ‘রুম্পার ধর্ষণ ও হত্যার বিচার চাই’, ‘বিচার হতেই হবে, আর কত?’, ‘স্টপ স্টপ স্টপ’সহ নানা স্লোগান লেখা প্লাকার্ড হাতে নিয়ে তারা এ অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। অবস্থান কর্মসূচি থেকে তারা রুম্পা হত্যার বিচার চেয়ে স্লোগান দেন।

এ সময় শিক্ষার্থীরা বলেন, রুম্পা হত্যার চারদিন পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত এ হত্যার কারণ উদঘাটন করা হয়নি। রুম্পার হত্যার রহস্য তার সহপাঠীরা জানতে চায়, তাই দ্রুত এ তদন্ত প্রতিবেদন জানাতে হবে। গত তিনদিন ধরে আমরা ক্যাম্পাসে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছি, এভাবে প্রশাসন ঘুমিয়ে থাকলে আমরা কঠোর আন্দোলনে নামতে বাধ্য হব।

তারা আরও বলেন, রুম্পা হত্যার বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। আগামী দুই-একদিনের মধ্যে রুম্পা হত্যার তদন্ত প্রতিবেদন দেয়া না হলে আমরা কঠোর আন্দোলনে নামব।

উল্লেখ্য, গত বুধবার রাতে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরী সার্কুলার রোডের আয়েশা শপিং কমপ্লেক্সের পেছনে দুই বাড়ির মাঝ থেকে রুম্পার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) মর্গে ওই তরুণীর লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়। ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসকদের ধারণা, মৃত্যুর আগে ওই তরুণী ধর্ষণের শিকার হন।


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:৪৭
প্রিন্ট করুন printer

রাজশাহীর নতুন বিভাগীয় কমিশনার হুমায়ুন কবীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহীর নতুন বিভাগীয় কমিশনার হুমায়ুন কবীর
মো. হুমায়ুন কবীর

রাজশাহীর নতুন বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত অতিরিক্ত সচিব মো. হুমায়ুন কবীর।

মঙ্গলবার হুমায়ুন কবীরকে এই নিয়োগ দিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে আদেশ জারি করা হয়েছে।

রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনারের দায়িত্ব চালিয়ে আসা অতিরিক্ত সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকারকে সচিব পদে পদোন্নতির পর নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে পদায়ন করা হয়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:২৮
প্রিন্ট করুন printer

ফের বাসা-ভাড়াটিয়ার তথ্য নেবে ডিএমপি

অনলাইন ডেস্ক

ফের বাসা-ভাড়াটিয়ার তথ্য নেবে ডিএমপি

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিএমপি-ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেছেন, ডিএমপি কমিশনার নির্দেশ দিয়েছেন রাজধানীর বাসা-বাড়ির ও ভাড়াটিয়াদের তথ্য হালনাগাদ করার। আমরা খুব দ্রুতই এ হালনাগাদের কাজ শুরু করবো। আমাদের পুলিশ সদস্যরা প্রতিটি বাসা-বাড়িতে গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করবেন।

মঙ্গলবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান।

নগরবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রত্যেকটি ডিভিশন ও থানায় পুলিশের ফোর্স বাড়ানো হয়েছে। পাশাপাশি বিট পুলিশিং শক্তিশালী করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, সম্প্রতি ঢাকায় রাতের বেলা বিভিন্ন জায়গায় ছিনতায়ের ঘটনা ঘটছে। ছিনতাই-ডাকাতিসহ বিভিন্ন সম্পত্তি-অর্থনৈতিক অপরাধ নিয়ন্ত্রণে আনতে গত ১৬ জানুয়ারি থেকে সাঁড়াশি অভিযান শুরু হয়েছে।

রাজধানীতে শুধু এই ছিনতাই জাতীয় অপরাধ হয় না, বিভিন্ন ধরনের অপরাধ হয়। এ বিষয়ে টহল টিম বাড়ানো হয়েছে। আমাদের প্রতিটি থানায় এখন ২৫ থেকে ৩০ জনকে সাব ইন্সপেক্টর দেয়া হয়েছে।

বি ডি প্রতিদিন/আরাফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৬:২৮
প্রিন্ট করুন printer

কার্প ফ্যাটেনিং প্রযুক্তি সম্প্রসারণে কলাপাড়ায় মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

কার্প ফ্যাটেনিং প্রযুক্তি সম্প্রসারণে কলাপাড়ায় মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের একটি প্রকল্পের আওতায় পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের উদ্ভাবিত কার্প ফ্যাটেনিং প্রযুক্তি সম্প্রসারণে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার সলিমপুর গ্রামে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের মৎস্য বিভাগের সদস্য পরিচালক ড. মো. মনিরুল ইসলাম। পবিপ্রবি’র সহকারী রেজিস্ট্রার ও জনসংযোগ বিভাগের প্রধান মুহাম্মাদ ইমাদুল হক প্রিন্স প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

প্রকল্পের প্রধান গবেষক পবিপ্রবি’র একুয়াকালচার বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে এবং এমএস ছাত্র অয়ন সমাদ্দারের সঞ্চালনায় মাঠ দিবসের অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী প্রধান গবেষক পবিপ্রবি’র ফিশারিজ বায়োলজি এন্ড জেনেটিক্স বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. আরিফুল আলম।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পবিপ্রবি’র মৎস্য বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. লোকমান আলী, বরিশাল বিভাগীয় মৎস্য অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আনিছুর রহমান তালুকদার। 

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইন্সটিটিউটের নদী উপ-কেন্দ্রের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা অভিজিৎ বসু এবং ইকোফিশ ও ওয়ার্ল্ডফিশের গবেষণা সহযোগী সাগরিকা স্মৃতি। মাঠ দিবসের অনুষ্ঠানে প্রকল্পের সদস্যবৃন্দ, পবিপ্রবি’র মৎস্য বিজ্ঞান অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের এমএস শিক্ষার্থী সহ শতাধিক মৎস্য চাষি উপস্থিত ছিলেন। 

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:২৮
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:২৯
প্রিন্ট করুন printer

চিকিৎসকের যৌন হয়রানির তদন্ত নিয়ে গড়িমসি, নার্সদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

চিকিৎসকের যৌন হয়রানির তদন্ত নিয়ে গড়িমসি, নার্সদের বিক্ষোভ

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে এক চিকিৎসকের হাতে নার্সের যৌন হয়রানির ঘটনার তদন্ত নিয়ে গড়িমসির অভিযোগ উঠেছে। এর প্রতিবাদে হাসপাতালের নার্সেরা মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছেন।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে হাসপাতালের প্রধান ফটকের সামনে তারা এ কর্মসূচি পালন করেন। কর্মসূচি থেকে তারা চিকিৎসকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চান।

অভিযুক্ত চিকিৎসকের নাম মামুন-অর-রহমান। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যানেসথেসিয়া ডিপ্লোমা করছেন। সেখান থেকেই কোর্স সম্পন্ন করতে এসেছেন রামেক হাসপাতালে। ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস শেষ করা ডা. মামুন চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে কর্মরত। ছুটি নিয়ে তিনি অ্যানেসথেসিয়া কোর্স করছেন।

রামেক হাসপাতালে তিনি নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) দায়িত্বে ছিলেন। সেখানেই কর্তব্যরত এক নার্সকে যৌন হয়রানির ঘটনাটি ঘটিয়েছেন গত ১৮ ও ১৯ জানুয়ারি। বিষয়টি জানাজানি হলে পরদিন তাকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। গঠন করা হয়েছে একটি তদন্ত কমিটি। কমিটিতে একজন নার্স, বাকি চারজন চিকিৎসক। তারা ঘটনাটিকে ভিন্ন খাতে নেওয়ার চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন নার্সেরা। এর প্রতিবাদেই তারা বিক্ষোভ করেন।

বাংলাদেশ নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের রামেক হাসপাতাল শাখার ব্যানারে এ কর্মসূচি পালিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের রামেক শাখার সভাপতি শাহাদাতুন নূর লাকি। পরিচালনায় ছিলেন সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ খলিলুর রহমান। সমাবেশে সংগঠনের অন্যান্য সদস্যরা বক্তব্য দেন।

বক্তারা বলেন, ঘটনার পর লম্বা সময় পার হলেও অভিযুক্ত চিকিৎসককে শুধু দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি ছাড়া অন্য কোন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন দিতেও গড়িমসি করছেন। এই গড়িমসি তারা মেনে নেবেন না। অভিযুক্ত চিকিৎসক পার পেলে তারা আরও বড় কর্মসূচি হাতে নেবেন।

রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, তদন্ত কমিটি নিজেদের মতো করেই তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছেন। এ পর্যন্ত প্রতিবেদন আসেনি। তবে নার্সেরা বিক্ষোভ করলেন বলে শুনলাম। আমরা বিষয়টি দেখছি। কেউ অপরাধ করে থাকলে ছাড় পাবেন না।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৫:১২
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৭:০৭
প্রিন্ট করুন printer

১২ কোটি টাকায় গাবতলী-মহাখালী টার্মিনাল ইজারা

অনলাইন ডেস্ক

১২ কোটি টাকায় গাবতলী-মহাখালী টার্মিনাল ইজারা

রাজধানীর গাবতলী ও মহাখালী আন্তঃজেলা বাস টার্মিনাল প্রথমবারের মতো উন্মুক্ত দরপত্র আহবানের মাধ্যমে এক বছরের জন্য ১২ কোটি ১ লাখ ২০ হাজার টাকায় ইজারা দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের উদ্যোগে সম্প্রতি বাস টার্মিনাল দু’টির ইজারা সম্পন্ন হয়। মঙ্গলবার বেলা ১২টায় গুলশানস্থ ডিএনসিসির নগর ভবনে মেয়র আতিকুল ইসলামের কাছে ইজারাদারগণ চেক হস্তান্তর করেন। 

চেক হস্তান্তরের পর আতিকুল ইসলাম বলেন, মহাখালী ও গাবতলী বাস টার্মিনাল দু’টি থেকে সেভাবে কোনো রাজস্ব আদায় করা যায়নি। আমি এসে দেখেছি এখানে অনেক আগে থেকেই গলদ ছিল। এর ফলে সিটি করপোরেশন রাজস্ব হারাচ্ছে। তাই আমরা উন্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে ইজারা দিয়েছি। আমরা যখন ইজারা দিতে গেলাম, কর্মকর্তাদেরকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেওয়া হয়েছিল। আমি বলেছি নিয়ম অনুযায়ী দরপত্রের মাধ্যমে ইজারা দেওয়া হবে”।

আতিকুল ইসলাম আরো বলেন, গত ১২ বছরে কমপক্ষে ১৫০ কোটি টাকা আদায় করা যেত। এখন ইজারাদারদেরকে বাস টার্মিনাল গুলোতে সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখার জন্য শর্ত দেওয়া হয়েছে। অন্যথায় ইজারা বাতিল হবে। আগের বিশৃঙ্খল পরিবেশ বজায় রাখা যাবে না। এই যে নতুন সিস্টেম প্রচলন হতে যাচ্ছে, এভাবে আস্তে আস্তে রাজধানীতে পরিবর্তন আসবে।

১২ জানুয়ারি ২০২১ থেকে ১১ জানুয়ারি ২০২২ পর্যন্ত এক বছরের জন্য লালমাটিয়াস্থ রাফি ট্রেডার্স লিমিটেডকে বাৎসরিক ৭ কোটি ৩৯ লাখ ২০ হাজার টাকায় গাবতলী টার্মিনাল ইজারা দেওয়া হয়। এছাড়া এই টার্মিনালের বিদ্যুৎ ও পানির বিল ইজারাদার কর্তৃক পরিশোধ করতে হবে। 

গাবতলী বাস টার্মিনালে রাজস্ব আদায়ের উল্লেখযোগ্য খাতসমূহ হচ্ছে-যানবাহনের টার্মিনাল ফি-বাস ও মিনিবাস ৫০ টাকা; সিএনজি (ট্যাক্সি) ১০ টাকা; ঠ্যালা গাড়ি-ভ্যান ১০ টাকা; বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহৃত পিক আপ ৩০ টাকা। মূল ভবনের স্থায়ী দোকান প্রতি বর্গফুট প্রতি মাসে ৫ টাকা; অস্থায়ী দোকান প্রতি বর্গফুট প্রতি মাসে ২৫ টাকা হারে। প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ বিল ১৫ টাকা ৩৬ পয়সা। ১৫ ও ৩৬ বর্গফুটের অস্থায়ী টোকেনের দোকান মাসিক যথাক্রমে ২২৫ ও ৩৬০ টাকা। মূল ভবনের বাইরে স্থায়ী চা ও ফলের স্টল মাসিক ৭৫০ টাকা; পানের স্টল মাসিক ৫০০টাকা; খাবারের স্টল মাসিক ১০০০ টাকা। গাড়ি ধোয়ার র‍্যাম্প মাসিক ৬ হাজার টাকা।

এদিকে, মহাখালী আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালের রাজস্ব আদায়ের জন্য ইব্রাহিমপুরের গাজী রাইয়ান এন্টারপ্রাইজকে ২৬ জানুয়ারি ২০২১ থেকে ২৫ জানুয়ারি ২০২২ পর্যন্ত এক বছরের জন্য ৪ কোটি ৬২ লাখ টাকায় ইজারা দেওয়া হয়। এছাড়া এই টার্মিনালের বিদ্যুৎ ও পানির বিল ইজারাদার কর্তৃক পরিশোধ করতে হবে। 

মহাখালী আন্তঃজেলা বাস টার্মিনালে রাজস্ব আদায়ের উল্লেখযোগ্য খাতসমূহ হচ্ছে-যানবাহনের টার্মিনাল ফি-বাস ও মিনিবাস ৫০ টাকা; সিএনজি (ট্যাক্সি) ১০ টাকা; ঠ্যালা গাড়ি-ভ্যান ১০ টাকা; বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহৃত পিক আপ ৩০ টাকা। টার্মিনাল ভবনের ভিতরে ১০৪ বর্গফুট থেকে ৮৭৫ বর্গফুটের ৬টি দোকান ও ক্যান্টিন প্রতি বর্গফুট মাসিক ২১ টাকা থেকে ৩৩ টাকা ভাড়া। অস্থায়ী টোকেনের দোকান প্রতি বর্গফুট প্রতি মাসে ১৬ টাকা। ১টি বড় টিকেট কাউন্টার মাসিক ৬৬৭৫ টাকা। ৩৯টি ছোট টিকেট কাউন্টার মাসিক ৭৩৫ টাকা। প্রতি ইউনিট বিদ্যুৎ বিল ১৫ টাকা ৩৬ পয়সা। 

চেক হস্তান্তরকালে অন্যান্যের মধ্যে ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, মহাব্যবস্থাপক (পরিবহন) মিজানুর রহমান, প্রধান ভান্ডার ও ক্রয় কর্মকর্তা সগীর হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

এই বিভাগের আরও খবর