শিরোনাম
প্রকাশ : ১১ আগস্ট, ২০২০ ১৯:৪০

রংপুরে খাদিজা হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেক, রংপুর:

রংপুরে খাদিজা হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতার দাবি

স্বামী ও তার পরিবারের সদস্যরা নির্যাতনের পর খাদিজাকে হত্যা করেছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতার ও দ্রুত বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেছে নিহতের পরিবারের সদস্যরা।  

মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর সিটি প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন খাদিজার বোন মরিয়ম বেগম। এসময় তিনি বলেন, ২০১২ সালে পীরগঞ্জ উপজেলার ছোট মির্জাপুর তেলি পাড়া গ্রামের সোহরাব হোসেনের ছেলে আতিকুর রহমানের সাথে খাদিজার বিয়ে  হয়। পরে খাদিজা বেগমের গর্ভে আব্দুল্লাহ (৩ বছর) ও জারিফ (৩ মাস) নামে দুই পুত্র সন্তান জন্মগ্রহণ করে। বিয়ের পর থেকে বোন জামাইসহ তার শ্বশুর-শাশুড়ি, ননদ, জা ও দেবর প্রতিনিয়ত শারীরিক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করে আসতো। সেই সাথে তারা যৌতুক চাইতো। এ বিষয়ে একাধিকবার গ্রাম্য বিচার শালিসও হয়েছে। গত ১৫ জুলাই দুপুরে খাদিজার পরিবারের নিকট সংবাদ আসে তার বোন খাদিজাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এমন কী তার স্বামীর বাড়ির লোকজনও খাদিজাকে খুঁজছে না। পরে ১৬ জুলাই বোন জামাইয়ের বাড়ির পাশের একটি পুকুর থেকে এলাকাবাসী বোনের ভাসমান লাশ উদ্ধার করে। 

এ ঘটনায় পীরগঞ্জ থানায় আতিকুরসহ অজ্ঞাতনামা আসামিদের নামে মামলা রুজু হলে পুলিশ আতিকুরকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এ ঘটনার পরে আতিকুরের পরিবারের লোকজন মামলা তুলে নিতে একটি প্রভাবশালী মহলের সহযোগিতায় অব্যাহত হুমকী দিয়ে আসছে। হুমকি দেয়ায় পরিবারের নিরাপত্তার বিষটি বিবেচনা করে একটি জিডি করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত সকল আসামিদের গ্রেফতার করার দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে নিহত খাদিজার বাবা, খালা, ভাই উপস্থিত ছিলেন। 


বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর