শিরোনাম
প্রকাশ : ২১ জুন, ২০২১ ১৯:৩১
প্রিন্ট করুন printer

মা-বাবা-বোনকে হত্যা; মেহজাবিনের স্বামী শফিকুল রিমান্ডে

অনলাইন ডেস্ক

মা-বাবা-বোনকে হত্যা; মেহজাবিনের স্বামী শফিকুল রিমান্ডে
প্রতীকী ছবি
Google News

রাজধানীর কদমতলীতে একটি বাসা থেকে এক দম্পতি ও তাদের মেয়ের মরদেহ উদ্ধার ঘটনায় ওই দম্পতির আরেক মেয়ে মেহজাবিনের স্বামী শফিকুল ইসলামকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

সোমবার শুনানি শেষে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনুর রহমান শফিকুল ইসলামের তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

শফিকুল ইসলামকে আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক জাকির হোসাইন। পরে বিচারক তার তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রবিবার একই মামলায় মেহজাবিন মুনকে চারদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত।

জানা যায়, ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে শনিবার) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মাসুদ রানা (৪৫), তার স্ত্রী জোসনা ওরফে মৌসুমী (৪০) এবং তাদের ছোট মেয়ে জান্নাতের (১৮) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তিনজনকে হত্যা করে মেহজাবিন নিজেই ৯৯৯ এ ফোন দিয়ে পুলিশকে খুনের কথা অবহিত করেন। পরে ওই বাসা থেকে মেহজাবিন ও তার স্বামী শফিকুলকে আটক করে পুলিশ।

মেহজাবিন পুলিশকে জানান, পারিবারিক কলহের জেরেই এ হত্যাকাণ্ড। পরিবারের সদস্যদের প্রতি প্রচণ্ড ক্ষোভ ছিল তার। মেহজাবিনের মা তাকে ও তার বোনকে দিয়ে দেহ ব্যবসা করাতো। বিয়ে হয়ে গেলে নিহত ছোট বোনকে নিয়ে একই কাজ করাতে থাকে। এছাড়া তার বোন জান্নাতুলের সঙ্গে স্বামী শফিকুলের সম্পর্ক রয়েছে বলে সন্দেহ ছিল মেহজাবিনের। এ নিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে মনোমালিন্য চলছিল। বিষয়টি মা-বাবাকে বলার পরও কোনো লাভ হয়নি। উল্টো মায়ের সঙ্গে ঝগড়া হয়েছে। সেই আক্রোশ থেকেই তিনি মা-বাবা ও বোনকে খুন করেন বলে পুলিশকে জানান।

গত ২০ জুন মেহজাবিন মুন ও তার স্বামী শফিকুল ইসলামকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন তার চাচা সাখাওয়াত হোসেন। 

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন

এই বিভাগের আরও খবর