১ আগস্ট, ২০২১ ১৬:৫৭

বরিশাল নদী বন্দরে যাত্রীদের উপচে ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

বরিশাল নদী বন্দরে যাত্রীদের উপচে ভিড়

বরিশাল নদী বন্দরে যাত্রীদের উপচে ভিড়

আগামীকাল সোমবার সকাল পর্যন্ত লঞ্চ চলাচলের সময় বৃদ্ধির সরকারি ঘোষণায় বরিশাল নদী বন্দরে ভিড় করেছেন কয়েক হাজার যাত্রী। তবে বরিশাল নদী বন্দর থেকে লঞ্চগুলো রাত ৮টার পর ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার খবর শুনে অনেক যাত্রী বিকল্প ব্যবস্থায় ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন।

সরকারের পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী রবিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত লঞ্চ চলাচলের অনুমতি ছিল। কিন্তু সময় এবং যাত্রী স্বল্পতার কারণে লঞ্চ মালিকরা লঞ্চ ছাড়তে রাজী হয়নি।

এদিকে, ঢাকামুখী কারখানা শ্রমিকদের রাজধানীতে যাতায়াতের সুবিধার্থে বিআইডব্লিউটিএ আগামীকাল সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত লঞ্চ চলাচলের সময় বৃদ্ধি করে।

এই খবর পেয়ে হাজারো যাত্রী ভিড় করে বরিশাল নদী বন্দরে। কিন্তু দীর্ঘক্ষণেও লঞ্চ ছাড়ার কোনো প্রস্তুতি না দেখে অনেক যাত্রী বিকল্প ব্যবস্থায় গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছুটেছেন।

বিকল্প পথে দুর্ভোগের আশঙ্কায় অনেক যাত্রী অবস্থান নিয়েছেন লঞ্চের ডেকে। তাদের অনেকের মুখে নেই মাস্ক। মানা হয়নি শারীরিক দূরত্বও। লঞ্চে জীবাণুনাশকও স্প্রে করা হয়নি। তারপরও লঞ্চে ঢাকা যাওয়ার সুযোগ পেয়ে খুশি যাত্রীরা। 

বরিশাল-ঢাকা রুটের এমভি অ্যাডভেঞ্চার লঞ্চের ম্যানেজার হুমায়ুন কবির বলেন, নদী বন্দর কর্মকর্তার নির্দেশে তাদের লঞ্চটি ঢাকা যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে। কিছু যাত্রী ডেকে তোলা হয়েছে। কেবিন বিক্রি হয়নি। রাত ৮টার পর লঞ্চটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

বরিশাল বিআইডব্লিউটিএ’র যুগ্ম পরিচালক (বন্দর ও পরিবহন) মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ঢাকামুখী কারখানা শ্রমিকদের যাতায়াতের স্বার্থে সরকার সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত লঞ্চ চলাচলের সময় বৃদ্ধি করেছে। বরিশাল নদী বন্দরে ৮টি লঞ্চ রয়েছে। যাত্রী পাওয়া গেলে সবগুলো লঞ্চ গন্তব্যের উদ্দেশে ছাড়বে। যাত্রী কম হলে সীমিত লঞ্চ ছাড়বে বলে তিনি জানান।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর