১৯ আগস্ট, ২০২১ ১৬:২৮

৬ পুরুষের পেশা, মৃত্যুর পরে কে ধরবে ঘানির হাল

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

৬ পুরুষের পেশা, মৃত্যুর পরে কে ধরবে ঘানির হাল

ঘোড়া দিয়ে সরিষার তেল মাড়াই করছেন সহিদুল ইসলাম।

বাপ-দাদাসহ ৬ পুরুষ থেকে ঘানিতে সরিষার তেল মাড়াই করে জীবিকা নির্বাহ করছেন। মারা গেলে ছেলেরা এই পেশা ধরে রাখবেন কিনা এ নিয়ে সহিদুল ইসলাম (৫৮) সন্দিহান। রংপুর নগরীর মর্ডান মোড়ে একটি টিনের চালা ভাড়া নিয়ে ঘোড়া দিয়ে সরিষার তেল মাড়াই করে বিক্রি করছেন তিনি।

সহিদুল ইসলাম জানালেন, তাদের গ্রামের বাড়ি কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলায়। সেখানে গরু দিয়ে মাড়াই করে তেল বিক্রি করতেন। সেখানে বিক্রি ভাল না হওয়ায় জীবিকার টানে এবং বাপ-দাদার ঐতিহ্য ধরে রাখতে একবছর আগে রংপুরে চলে এসেছেন। নগরীর মর্ডান মোড়ে একটি টিনের চালা ভাড়া নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন।

তিনি আরও জানান, পরিবারের সদস্যরা গ্রামের বাড়িতেই থাকেন। স্ত্রী, ৪ ছেলে ও এক মেয়ে তার। দুই ছেলে বিয়ে করে কৃষি কাজ করছেন। তারা ঘানির ব্যবসা করবেন না বলে জানিয়েছেন। ছোট দুই ছেলে লেখাপড়া করছেন। তারাও ভবিষ্যতে ঘানির ব্যবসা করবে কিনা এ নিয়ে তার সন্দেহ রয়েছে। মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন।

গরুর পরিবর্তে ঘোড়া দিয়ে কেন মাড়াই করছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, গরুর চেয়ে বেশি জোরে ঘোড়া দৌড়ায়। এতে তেল মাড়াই করতে সময় কম লাগে। এছাড়া ঘোড়া পালনে খরচ কিছুটা কম। তাই ২২ হাজার টাকা দিয়ে ঘোড়া কিনে তেল মাড়াই করছেন। 

তিনি বলেন, প্রতিদিন এক হাজার টাকার মতো আয় হয়। এদিয়ে ভালোভাবে সংসার চলে যাচ্ছে। তার বাবা জমির উদ্দিনসহ আগের ৫ পুরুষ এই ঘানির সাথে যুক্ত ছিলেন। তাই বাপ-দাদার পেশাকে ধরে রাখতে রংপুরে এসেছেন।  তার মৃত্যুর পরে এই পেশার হাল কে ধরবে, এনিয়ে তিনি চিন্তিত।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর