শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ জুন, ২০১৬ ০৩:২৭

শেষ সময় পর্যন্ত নিবন্ধিত সিম ১০ কোটি ৮১ লাখ

নিখরচায় চালুর সুযোগ দিচ্ছে অপারেটররা

নিজস্ব প্রতিবেদক

বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশনের শেষ সময় ৩১ মে রাত ১২টা পর্যন্ত ১০ কোটি ৮১ লাখ ৯ হাজার মোবাইল ফোনের সিম/রিম নিবন্ধিত/ পুনর্নিবন্ধিত হয়েছে। গতকাল বিটিআরসি এ তথ্য জানিয়েছে। বিটিআরসি আরও জানায়, শেষ সময় পার হয়ে যাওয়ার পর সরকারি নির্দেশনা অনুসারে অনিবন্ধিত দুই কোটি ৩৮ লাখ সিম/রিম বা সংযোগ নিষ্ক্রিয় করে দিয়েছে অপারেটররা। গত ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত মোবাইল অপারেটরদের গ্রাহক-সংযোগ ছিল ১৩ কোটি ১৯ লাখ। নিষ্ক্রিয় সিম/রিম চালু করতে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) নির্দেশনা অনুসারে গ্রাহকদের কাছ থেকে নতুন কেনার মতোই কর, চার্জ নেওয়ার কথা থাকলেও অপারেটররা তা নিচ্ছে না। তারাই এসব বহন করে গ্রাহকদের বিনামূল্যে সংযোগ চালু করার সুযোগ দিচ্ছে। মোবাইল ফোন অপারেটর এয়ারটেল সংবাদপত্রে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে তাদের গ্রাহকদের জানিয়েছে, বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন না করার কারণে বন্ধ হয়ে যাওয়া সিম সাত দিনের মধ্যে পুনর্নিবন্ধন করালে ফি নেওয়া হবে না। গ্রামীণফোন তাদের গ্রাহকদের এসএমএসে জানিয়েছে, দ্রুত তাদের বায়োমেট্রিক রেজিস্ট্রেশন পয়েন্টে গিয়ে চার্জ ছাড়াই পুনর্নিবন্ধন করে নিতে।

গ্রামীণফোনের একজন কর্মকর্তা জানান, পরবর্তী সিদ্ধান্ত না নেওয়া পর্যন্ত বিনামূল্যে এ সেবা দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ৩০ মে মোবাইল ফোন অপারেটরদের কাছে পাঠানো বিটিআরসির সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের পরিচালক লে. কর্নেল মোহাম্মদ জুলফিকার স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় বলা হয়, বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন না হওয়ার কারণে সংযোগ নিষ্ক্রিয় করার দিন থেকে পরবর্তী ৪৫০ দিনের (১৫ মাস) মধ্যে যথাযথ প্রক্রিয়া মেনে আবার চালু করা যাবে।

সংশ্লিষ্ট গ্রাহককে বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করতে হবে। ওই সময়ের পর সংশ্লিষ্ট অপারেটর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে ওই সিম/রিম বিক্রির ঘোষণা দেবে। ঘোষণার পর ৯০ দিনের মধ্যে বায়োমেট্রিক ভেরিফিকেশন করে সংযোগ চালু করা যাবে। এই ৫৪০ (৪৫০+৯০) দিন পর অপারেটররা ওইসব সিম/রিম বিক্রি করে দিতে পারবে।


আপনার মন্তব্য