শিরোনাম
প্রকাশ : সোমবার, ২১ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২০ জানুয়ারি, ২০১৯ ২২:৫৯

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিতে কাজ করব

------- তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিতে কাজ করব

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, দেশের সব গণমাধ্যম যেন স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে, সেই লক্ষ্যে কাজ করে যাব। সমাজকে সঠিক খাতে প্রবাহিত করতে গণমাধ্যমের ভূমিকা অপরিসীম। সমাজ যেন সঠিকপথে চলে সেই লক্ষ্যে দেশের সব গণমাধ্যমকে কাজ করে যেতে হবে। গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ শীর্ষক গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান। অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে  ডিআরইউ। ডিআরইউর সভাপতি ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান। গণমাধ্যম কর্মীদের নবম ওয়েজ বোর্ড নিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমরা নবম ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। আগামী মন্ত্রিসভা বৈঠকে বিষয়টি আলোচনা করা হবে। টেলিভিশন সাংবাদকর্মীদের ওয়েজ বোর্ডের আওতায় আনার ব্যাপারেও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করা হবে। অনলাইনে গণমাধ্যমের নীতিমালা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অনলাইন গণমাধ্যমের নীতিমালা নিয়ে আমরা কাজ করছি। দ্রুত এই নীতিমালাও বাস্তবায়ন করা হবে। নীতিমালা বাস্তবায়নের সময় অনলাইন গণমাধ্যমের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব বিষয়ে আলাপ-আলোচনা করা হবে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সাংবাদিকদের জন্য নয়। এটি দেশের সব মানুষের জন্য। এটি নিয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে কোনো ধরনের বিভ্রান্তি না থাকে সেই লক্ষ্যে কাজ করব। সাংবাদিক দম্পতি সাগর রুনীর হত্যা মামলার বিচার নিয়ে জানতে চাইলে তথ্যমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রণালয়ে নতুন যোগদান করেছি। আমি এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর সঙ্গে কথা বলব, যেন এ বিষয়টি দ্রুত নিষ্পত্তি হয়।

সরকারি টিভি এবং রেডিওর উন্নয়নে কাজ করা হবে কিনা জানতে চাইলে হাছান মাহমুদ বলেন, আমরা এরই মধ্যে সিদ্ধান্ত নিয়েছি ছয়টি বিভাগে নতুন টিভি সেন্টার চালু করা হবে। এ ছাড়া চট্টগ্রামের বিটিভির সেন্টারটি ছয় ঘণ্টার বদলে ১২ ঘণ্টার সম্প্রচারের বিষয়েও আমরা কাজ করছি।

এ সময় মন্ত্রী সাংবাদিকদের একাধিক প্রশ্নের জবাবে বলেন, গণমাধ্যম কর্মীদের প্রশিক্ষণের প্রয়োজন রয়েছে। এ প্রশিক্ষণের বিষয়ে আমরা সম্মিলিতভাবে কাজ করতে পারি। তা ছাড়া সংবাদকর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে যদি সরকারকে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়নের জন্য দাবি জানানো হয় তাহলে এ বিষয়ে কাজ করা যাবে। বিএনপিকে নিয়ে করা এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, যে দল নিজেদের স্বার্থে রাজনীতি করে তারা কোনো দিন মানুষের ভালোবাসা পেতে পারে না। বিএনপি গত ১০ বছরে নিজেদের স্বার্থে আন্দোলন করেছে, জনগণের জন্য নয়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর