শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২৩:৩২

বিজিবি-বিএসএফ সম্মেলন শেষ

সীমান্তে সৌহার্দ্য বজায় রাখার প্রত্যাশা

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

সীমান্তে সৌহার্দ্য বজায় রাখার প্রত্যাশা

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) প্রতিনিধি সম্মেলন শেষে বাংলাদেশ ও ভারত সীমান্তে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার প্রত্যাশা ব্যক্ত করা হয়েছে। গতকাল চট্টগ্রাম নগরীর হালিশহরে বিজিবির দক্ষিণ-পূর্ব রিজিয়নের সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ প্রত্যাশার কথা বলেন উভয় দেশের সীমান্ত প্রহরীরা। ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে গতকাল পর্যন্ত দক্ষিণ-পূর্ব রিজিয়ন সদর দফতরে চার দিনব্যাপী এই সীমান্ত সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের শেষ দিন এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। প্রতি ছয় মাস অন্তর এ সীমান্ত সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। সংবাদ সম্মেলনে বিজিবির অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও দক্ষিণ-পূর্ব রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আমিরুল ইসলাম শিকদার বলেন, ভারত আমাদের বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র। ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে আমাদের ঐতিহ্য ধরে রাখতে আমরা কাজ করি। সম্মেলনে সীমান্ত হত্যা বন্ধ করা,  গুলিবর্ষণ রোধ করা, মাদক ও অস্ত্র চোরাচালান রুখতে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া, নারী ও শিশু পাচার রোধ করা এবং সীমান্তের ১৫০ গজের মধ্যে উন্নয়ন কার্যক্রমে সীমান্ত চুক্তি সঠিকভাবে অনুসরণের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। বিএসএফ মিজোরাম ও কাছাড় ফ্রন্টিয়ারের মহাপরিদর্শক ড. কানহু চরণ মাহালি বলেন, মাদক, অস্ত্রসহ সব ধরনের চোরাচালান ও অপরাধমূলক কর্মকান্ডের ব্যাপারে আমরা কঠোর অবস্থান নিয়েছি। ভারত সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে মাদক প্রবেশ বন্ধে বিজিবি ও বিএসএফ যৌথভাবে কাজ করছে।

উভয় দেশের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আমরা সব সময় সদ্ভাব বজায় রেখে কাজ করি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিজিবির অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ এস এম আনিসুল হক, অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজেদুর রহমান, বিএসএফ ত্রিপুরার মহাপরিদর্শক সলমন ইয়াশ কুমার, মেঘালয়ের মহাপরিদর্শক কুলদীপ সাইনি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর