Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ১৬ জুন, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৬ জুন, ২০১৯ ০১:২৫

আইনজ্ঞদের অভিমত

বাজেটে বিচার বিভাগের বরাদ্দ অপ্রতুল

আরাফাত মুন্না

বাজেটে বিচার বিভাগের বরাদ্দ অপ্রতুল

নতুন সরকারের প্রথম বাজেটে সুপ্রিম কোর্টসহ বিচার বিভাগের জন্য যে বরাদ্দ রয়েছে, তা একেবাড়েই অপ্রতুল বলে মনে করছেন আইনজ্ঞরা। তারা বলেন, একটি চার লেন মহাসড়কের ১৫ থেকে ১৬ কিলোমিটার নির্মাণ ব্যয়ের সমান বরাদ্দ রয়েছে বিচার বিভাগের সারা বছরের বাজেটে। দেশে চলমান মামলাজট ও জনসংখ্যা বিবেচনায় নিয়ে বাজেটে বিচার বিভাগের জন্য আরও বেশি অর্থ বরাদ্দ প্রয়োজন বলেও মন্তব্য তাদের। তারা জানান, বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ঘোষিত নতুন অর্থবছরের (২০১৯-২০) প্রস্তাবিত  বাজেটে দৃশ্যত আইন ও বিচার বিভাগের জন্য বরাদ্দ বেশি দেখা গেলেও সামগ্রিকভাবে চলতি অর্থবছরের (২০১৮-১৯) সংশোধিত বাজেটের তুলনায় বরাদ্দ কমেছে। গত অর্থবছর সুপ্রিম কোর্ট এবং আইন ও বিচার বিভাগের জন্য বরাদ্দ ছিল ১ হাজার ৭৩৬ কোটি টাকা; যা মোট বাজেটের শূন্য দশমিক ৩৫৯ শতাংশ। আর এবারের বাজেটে সুপ্রিম কোর্ট এবং আইন ও বিচার বিভাগের জন্য বরাদ্দ রয়েছে ১ হাজার ৮৪৮ কোটি টাকা; যা মোট বাজেটের শূন্য দশমিক ৩৫৩ শতাংশ। সে হিসেবে প্রস্তাবিত বাজেটে চলতি বাজেটের তুলনায় বিচার বিভাগের জন্য বরাদ্দ কমেছে শূন্য দশমিক ০০৬ শতাংশ। এ বিষয়ে সাবেক আইনমন্ত্রী সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘বর্তমানে দেশের আদালতগুলোয় প্রচুর মামলা রয়েছে। এসব নিষ্পত্তিতে আরও অনেক বিচারক নেওয়া প্রয়োজন। আবার অনেক সময় দেখা যায়, এজলাস সংকটের কারণে জেলা আদালতগুলোয় বিচারকদের এজলাস ভাগাভাগি করে বিচারকাজ পরিচালনা করতে হয়। সে ক্ষেত্রে বর্তমানে বাজেটে বিচার বিভাগের জন্য যে পরিমাণ বরাদ্দ থাকে তাতে এসব সমস্যার সমাধান করা সম্ভব নয়।’ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘বর্তমানে দেশে জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে মামলার সংখ্যাও বেড়ে চলেছে। এরই মধ্যে দেশের নিম্ন ও উচ্চ আদালতে প্রায় ৪০ লাখ মামলা বিচারাধীন। এ অবস্থায় বিচার বিভাগকে শক্তিশালী করার জন্য প্রয়োজনীয়সংখ্যক বিচারক ও অবকাঠামোর উন্নয়ন করা অত্যাবশ্যকীয়। কিন্তু জাতীয় বাজেটে বিচার বিভাগের জন্য যে বরাদ্দ দেওয়া হয় তা খুবই হতাশাব্যঞ্জক।’ সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিক বলেন, ‘আমাদের ১৭ কোটি মানুষের দেশে বাজেটে প্রতি বছরই বিচার বিভাগের জন্য বরাদ্দটা খুব কম থাকে। একটি চার লেন মহাসড়কের ১৫ থেকে ১৬ কিলোমিটার তৈরিতে যে ব্যয়, আমাদের বিচার বিভাগের জন্য বাজেটে এটুকুই বরাদ্দ থাকে।’


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর