শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৩১ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩০ জুলাই, ২০১৯ ২৩:৪৮

কদর বাড়ছে ফেনসিডিলের সরবরাহ কমছে ইয়াবার

চট্টগ্রামে রমরমা মাদক ব্যবসা

মুহাম্মদ সেলিম, চট্টগ্রাম

কদর বাড়ছে ফেনসিডিলের সরবরাহ কমছে ইয়াবার

দেশব্যাপী মাদক নিয়ে প্রশাসনের ‘কড়া’ অবস্থানের প্রভাবে কমেছে ইয়াবার সরবারহ। ফলে মাদক বাণিজ্যে কদর বেড়েছে ফেনসিডিল, গাঁজাসহ অন্যান্য মাদকের। একইভাবে মাদক ব্যবসায়ীরা পরিবহন ও বিক্রির ধরনে এনেছে পরিবর্তন। চট্টগ্রাম মেট্রো মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিচালক শামীম আহমেদ বলেন, ‘প্রশাসনের কড়া অবস্থানের কারণে ইয়াবা আগের মতো পাচার হয় না। তাই মাদকসেবীরা নেশা করতে ভিন্ন মাদকের দিকে ঝুঁকবে এটাই স্বাভাবিক। সাম্প্রতিক সময়ে ফেনসিডিল, গাঁজাসহ অন্যান্য মাদকের চাহিদা হয়তো বেড়েছে। আমরা চাইছি সব ধরনের মাদকের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে আনতে। এ জন্য নানামুখী কার্যক্রম নেওয়া হয়েছে।’

অনুসন্ধানে জানা যায়, দেশব্যাপী প্রশাসনের ইয়াবাবিরোধী কার্যক্রম বৃদ্ধি, ইয়াবা পাচারের রুটে প্রশাসনের কড়াকড়ি এবং সীমান্তে অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি তৎপরতার কারণে দেশে ইয়াবা সরবারহ কমেছে। তাই মাদকাসক্তরা ইয়াবার বিকল্প হিসেবে নেশা করতে অন্যান্য নেশাজাতীয়  দ্রব্যের দিকে ঝুঁকে পড়েছেন। তাই ফেনসিডিল, গাঁজা, চোলাই মদ, বিদেশি মদ, হেরোইনসহ কয়েক শ্রেণির মাদকের চাহিদা বেড়েছে। শুধু মাদক ব্যবসার রকম পরিবর্তন নয়, মাদক বেচাকেনায়ও পরিবর্তন এনেছে মাদক ব্যবসায়ী। তারা নিয়মিত স্পটের পরিবর্তে মোবাইল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে মাদক বেচাকেনা করছে।

এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় মাদক পরিবহন করতে আন্তর্জাতিক মাফিয়া চক্রগুলো অনুসরণ করছে ‘কাট আউট’ পদ্ধতি। পরিবর্তন আনা হয়েছে মাদক পাচারের রুটের। মাদক পরিবহনে ব্যবহার করা হচ্ছে নারী ও শিশুদের।  ফলে তাদের গ্রেফতারের আওতায় আনা কষ্টকর হয়ে যাচ্ছে প্রশাসনের।

 

চট্টগ্রাম মেট্রো মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের পরিদর্শক তপন কান্তি শর্মা বলেন, ‘এক সময়ে চট্টগ্রাম নগরীর কিছু সুর্নির্দিষ্ট এলাকায় মাদক বিক্রি হতো। কিন্তু প্রশাসনের কঠোর অবস্থানের কারণে বর্তমানে এসব স্পটে আর মাদক বিক্রি হয় না। মাদক ব্যবসায়ীরা এখন মোবাইল ও ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করে মাদক বিক্রি করছে। ফলে মাদক ব্যবসায়ীদের শনাক্ত ও গ্রেফতার করা কঠিন হয়ে পড়েছে।

নগরীর বাকলিয়া থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, ‘প্রশাসনকে ফাঁকি দিতে মাদক ব্যবসায়ীরা নানা পদ্ধতি ব্যবহার করছে। পুলিশও চেষ্টা করছে তাদের অনুসরণ করা পদ্ধতিগুলোর বিষয়ে অবগত হয়ে তাদের গ্রেফতারের আওতায় আনতে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর