শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ২৩:৩৫

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে সব অপারেশন বন্ধ

এনেসথেসিওলজিস্ট নেই

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

২৫০ শয্যার সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে এনেসথেসিওলজিস্ট না থাকায় গত এক মাসেরও বেশি সময় ধরে ছোট-বড় সব ধরনের অপারেশন বন্ধ রয়েছে। দীর্ঘদিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারসহ চিকিৎসক সংকট রয়েছে হাওর অধ্যুষিত জেলার সরকারি বড় এই হাসপাতালটিতে। ডাক্তার, নার্স ও লোকবল সংকটের কারণে চিকিৎসাসেবা পাওয়া থেকে সাধারণ মানুষ বঞ্চিত হওয়ার বিষয়টি স্বাস্থ্য বিভাগ ওয়াকিফহাল থাকলেও সংকট উত্তরণে কার্যকর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে শুরু করে সংসদ পর্যন্ত এ নিয়ে বার বার আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে, কাজের কাজ কিছুই হয়নি। সম্প্রতি জাতীয় সংসদে সদর হাসপাতলের ডাক্তার সংকট ও চিকিৎসাসেবার মান নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছেন বিরোধী দলের হুইপ ও সদর আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ। সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপসহ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে উদ্যোগী হওয়ার দাবি জানিয়েছেন তিনি। হাসপাতাল সূত্র জানায়, সদর হাসপাতালের এনেসথেসিওলজিস্টের দায়িত্বে থাকা ডা. জয়ন্ত কুমার অবসরে যাওয়ার পর বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা হাসপাতালের মেডিকেল        অফিসার ডা. শাকিলকে ওই পদে ডেপুটেশনে নিয়ে আসা হয়। কিছুদিনের মধ্যে তিনিও বদলি হয়ে ঢাকায় চলে গেলে এনেসথেসিওলজিস্টের একমাত্র পদটি শূন্য হয়ে যায়। রোগীকে অবশকরণে ডাক্তার না থাকায় একমাস ধরে রোগীদের সব ধরনের অস্ত্রোপচার (অপারেশন) বন্ধ রয়েছে হাসপাতালটিতে।

 জানা যায়, ২৫০ শয্যার সদর হাসপাতালে ৫৯ জন ডাক্তার থাকার কথা থাকলেও বর্তমানে কর্মরত রয়েছেন মাত্র ১৬ জন। সুনামগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা. শামস উদ্দিন বলেন, সদর হাসপাতালের লোকবল সংকট নিরসনের জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠিয়েছি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর