শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ ডিসেম্বর, ২০২০ ০১:১৭

শুরু হলো মাসব্যাপী ২২তম নবীন শিল্পী চারুকলা প্রদর্শনী

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালার গ্যালারি ১, ৩, ৫, ৬ ও ভাস্কর্য গ্যালারিতে শুরু হয়েছে মাসব্যাপী নবীন শিল্পী চারুকলা প্রদর্শনী ২০২০। ২১ থেকে ৩৫ বছরের ৫১৯ জন শিল্পীর ১৩৫০টি জমাকৃত শিল্পকর্ম থেকে নির্বাচকম লীর বাছাইকৃত ৩৩৭ জন শিল্পীর ৩৬৮টি শিল্পকর্ম দিয়ে সাজানো হয়েছে এ প্রদর্শনী। চিত্রকলা, ছাপচিত্র, ভাস্কর্য, প্রাচ্যকলা, কারুশিল্প, মৃৎশিল্প, গ্রাফিক ডিজাইন, আলোকচিত্র, স্থাপনাশিল্প, পারফরমেন্স আর্ট, নিউ মিডিয়া আর্টসহ বিভিন্ন ধরনের শিল্পকর্ম স্থান পেয়েছে প্রদর্শনীটিতে।

গতকাল বিকালে একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধনের পাশাপাশি পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে অনলাইনে উপস্থিত থেকে ‘২২তম নবীন শিল্পী চারুকলা প্রদর্শনী ২০২০’-এর উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. বদরুল আরেফীন, বরেণ্য চিত্রশিল্পী শহিদ কবীর এবং সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবদুল মান্নান ইলিয়াস।

একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন একাডেমির চারুকলা বিভাগের পরিচালক সৈয়দা মাহবুবা করিম। বিচারকম লীর পক্ষ থেকে বক্তৃতা করেন শিল্প সমালোচক মোস্তফা জামান এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন একাডেমির সচিব নওসাদ হোসেন।

সব মাধ্যমের শ্রেষ্ঠ পুরস্কার ‘নবীন শিল্পী চারুকলা পুরস্কার ২০২০’ এবং ফটোগ্রাফিসহ চারুশিল্পের ১১টি শাখায় এ বছরে প্রত্যেকটিতে একটি করে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। মোট পুরস্কারের সংখ্যা ১২টি। সব মাধ্যমের শ্রেষ্ঠ পুরস্কার ‘২২তম নবীন শিল্পী চারুকলা পুরস্কার ২০২০’ পেয়েছেন সোমা সুরভী জান্নাত (শিল্পকর্ম : আদিকথা)। বিভিন্ন মাধ্যমে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন চিত্রকলায় শিল্পী মো. তরিকুল ইসলাম, (রিভেঞ্জ : ২); ছাপচিত্রে শিল্পী মো. রফিকুল ইসলাম, (শিল্পকর্ম : নিউ বর্ন ১, ২, ৩); ভাস্কর্যে শিল্পী মোহাম্মদ মোজাহিদুর রহমান সরকার, (শিল্পকর্ম : টেরিটোরিয়াল রেস্ট); প্রাচ্যকলায় শিল্পী সঞ্জয় কুমার প্রামানিক (শিল্পকর্ম : আশ্রয়); কারুশিল্পে শিল্পী রুবাইত-ই-শারমিন, (শিল্পকর্ম : আস্থা-২); মৃৎশিল্পে শিল্পী তানভীর হোসেন রিদম (শিল্পকর্ম : আনুগত্যের সমর্পণ); গ্রাফিক ডিজাইনে শিল্পী ইমরান হাসান, (শিল্পকর্ম : অপ্রার্থিত অতিথি); আলোকচিত্রে শিল্পী মহসিন কবির (শিল্পকর্ম : গ্রামীণ ছায়া), স্থাপনা শিল্পে শিল্পী কুন্তল বাড়ৈ, (শিল্পকর্ম : দর্শন ও শব্দ); পারফরমেন্স আর্টে শিল্পী নাঈম হোসেন, (শিল্পকর্ম : জীবন ও দ্বন্দ্ব); নিউমিডিয়ায় শিল্পী মো. ফজলুল হক, (শিল্পকর্ম : থমকে যাওয়া স্বাভাবিকতা, ভিডিও আর্ট)।

প্রথমবারের মতো এ প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদসহ মোট ১২টি বিশ্ববিদ্যালয়/চারুকলা ইনস্টিটিউট।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর