শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৬ মে, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ মে, ২০২১ ২৩:৫১

২০ বছর পর সরকারি জমি থেকে ৮৪টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

২০ বছর পর সরকারি জমি থেকে ৮৪টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ
প্রায় ২০ বছর পর খুলনার ডুমুরিয়ার চুকনগরের যতিন কাসেম সড়কের দুই পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান -বাংলাদেশ প্রতিদিন
Google News

খুলনার ডুমুরিয়ার চুকনগর বাজার মোড়ে ব্যস্ততম যতিন কাসেম সড়ক। প্রায় ২০ বছর ধরে এখানে সড়কের দুই পাশে সরকারি জমি দখল করে গড়ে উঠেছে অসংখ্য অবৈধ স্থাপনা। দখল-বেদখলে সড়কটি একেবারে সরু হয়ে যাওয়ায় চলাচলে ব্যাপক ভোগান্তি তৈরি হতো। তবে স্থানীয় প্রশাসন ও জেলা পরিষদের উচ্ছেদ কার্যক্রমে স্বস্তি ফিরেছে এলাকায়। জানা যায়, এর মধ্যে সরকারি জমিতে থাকা ৮৪টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এ ছাড়া অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিয়েছে জেলা পরিষদ। জানা যায়, চুকনগর যতিন কাসেম সড়কটি খুলনা সাতক্ষীরা যশোরের বিকল্প সংযোগ সড়ক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা এস এম মাহবুবুর রহমান জানান, এলাকার ৭/৮ জন প্রভাবশালীর নিয়ন্ত্রণে এখানে বিভিন্ন সময় প্রায় ৮৪টি অবৈধ স্থাপনা তৈরি করে ভাড়া দেওয়া হয়। এর মধ্যে ৭১টি ছিল একতলা-দোতলা ভবন। বাজারের মূল ব্যবসায়ীদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে থেকে সড়ক পর্যন্ত সরকারি জায়গা দখল করে অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলা হয়। তবে স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে বিপুল পরিমাণ সরকারি সম্পত্তি উদ্ধার করা হয়েছে।

 এতে সড়কটি দুই পাশে আরও ৬ ফুট প্রশস্ত হওয়ায় যানজট মুক্ত হতে পেরে স্বস্তি ফিরেছে এই এলাকায়। ব্যবসায়ীরা জানান, সড়কটি দিয়ে চুকনগর এলাকা থেকে শিল্প শহর যশোরের নওয়াপাড়া, খুলনার দৌলতপুর ও ফুলতলায় মালামাল সহজে আনা নেওয়া করা হয়। অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের পর এ ব্যবসায়িক এলাকার চেহারা বদলে গেছে। সবার মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে। কিন্তু এই জমি দীর্ঘদিন পর উচ্ছেদ হলেও আবারও একটি পক্ষ তা দখলে নেওয়ার চেষ্টা করছে বলে জানা গেছে। তারা এই জমি নিজেদের নামে বরাদ্দ নিতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছে। এ ব্যাপারে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণে দাবি জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

এই বিভাগের আরও খবর