শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ জুলাই, ২০২১ ২৩:৩১

রক্তরঞ্জিত সম্পর্কের স্মৃতিস্তম্ভটি সরিয়ে ফেলায় আমরা ব্যথিত

আগরতলায় মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ বিলোপ করায় ২০ নাগরিকের বিবৃতি

নিজস্ব প্রতিবেদক

Google News

আগরতলায় মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভ বিলোপ করায় ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে স্মৃতিস্তম্ভটি যথাস্থানে স্বমহিমায় পুনঃস্থাপনের অনুরোধ জানিয়ে যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশের ২০ জন নাগরিক। গতকাল গণমাধ্যমে পাঠানো এ বিবৃতিতে তারা বলেছেন, ‘একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে ভারত তথা ত্রিপুরার মানুষের বিশাল সমর্থন বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসের অবিচ্ছেদ্য অংশ। ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার কেন্দ্রস্থল পোস্টঅফিস চৌমোহনির ৪০ ফুট উঁচু শহীদ স্মৃতিস্তম্ভটি ভারত ও বাংলাদেশের গণমানুষের অভিন্ন মুক্তির আকাক্সক্ষা ও সৌহার্দ্যরে অন্যতম প্রধান স্মৃতিচিহ্ন, যা দুই দেশের বীর শহীদদের সম্মিলিত রাখিবন্ধনের সাক্ষী। আগরতলার স্মৃতিবিজড়িত এ স্থানটি ঘিরেই ত্রিপুরা রাজ্যের মানুষ বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধরত গণমানুষকে ঐতিহাসিক ঋণবন্ধনে আবদ্ধ করেছিল। এ স্মৃতিস্তম্ভটি সম্প্রতি বিলোপ করা হয়েছে বলে আমরা গণমাধ্যমের খবরে জানতে পেরেছি।’ তারা বলেন, ‘দুই দেশের রক্তরঞ্জিত সম্পর্কের ইতিহাস জড়িত স্মৃতিস্তম্ভটি সরিয়ে ফেলায় আমরা ব্যথা বোধ করছি। আমরা ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে স্মৃতিস্তম্ভটি যথাস্থানে স্বমহিমায় পুনঃস্থাপনের অনুরোধ জানাই এবং দুই দেশের মানুষের সম্পর্কের প্রতীকী স্মৃতিস্মারকগুলো যথাযথ সংরক্ষণের প্রয়োজন বোধ করি।’ বিবৃতিদাতার মধ্যে রয়েছেন- লেখক ও ভাষাসংগ্রামী আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী, কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, অধ্যাপক ও প্রাবন্ধিক অনুপম সেন, নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি ডা. সারওয়ার আলী, মুক্তিযোদ্ধা ও অভিনেতা সৈয়দ হাসান ইমাম প্রমুখ।

এই বিভাগের আরও খবর