শিরোনাম
মঙ্গলবার, ২ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ টা
সংক্ষিপ্ত

রাজধানীতে পুলিশের সোর্স হত্যায় দুজন গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক

পুলিশকে মাদকের তথ্য দেওয়ায় সোর্স আলমগীর হোসেনকে হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা হলেন- ১৮টি মাদক মামলার আসামি রিমন ওরফে লিমন ও তার সহযোগী মহিউদ্দিন শিবলু। রবিবার রাতে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থেকে তাদের গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) মতিঝিল বিভাগ। পরে হত্যায় ব্যবহৃত চাপাতিও উদ্ধার করা হয়। গতকাল ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম কমিশনার (ডিবি) মো. মাহবুব আলম বলেন, নিহত আলমগীর ২৯ অক্টোবর রাজধানীর রামপুরার বৌবাজারে দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলছিলেন। রাত পৌনে ৮টার দিকে রিমন ও মহিউদ্দিন পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আচমকা আলমগীরের দুই পায়ের হাঁটুর পেছনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় আলমগীরের বাবা আতস আলী বাদী হয়ে রামপুরা থানায় মামলা করেন।

রিমন ও মহিউদ্দিন পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী। রিমনের সঙ্গে নিহত আলমগীরের এক সময় বন্ধুত্বও ছিল। নিহত আলমগীরের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ রিমনকে আগে গ্রেফতার করেছিল। যার জন্য আলমগীরের ওপর ক্ষোভের সৃষ্টি হয় রিমনের। আর এ ক্ষোভ থেকে রিমন পরিকল্পনা করে মহিউদ্দিনকে নিয়ে তাকে খুন করেন। গ্রেফতার রিমনের বিরুদ্ধে মাদক আইনে ১৮টি মামলা রয়েছে। নিহত আলমগীরের বাড়ি ময়মনসিংহ সদরে। স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে রামপুরার বৌবাজারে থাকতেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মাহবুব আলম বলেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমরা দেখতে পেয়েছি সোর্সরাই ব্যক্তিগত সুবিধা আদায়ের জন্য পরিচয় প্রকাশ করে নিজেদের নিরাপত্তা নিজেরাই বিঘ্নিত করে। তাদের সাধারণত পরিচয় গোপনের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়। অনেকেই সেটা মানে, অনেকেই আবার মানেন না। বেশি অপরাধ করা লোকজনকে পুলিশের সোর্স না করাই ভালো।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর