শিরোনাম
প্রকাশ : ২৯ মার্চ, ২০২০ ০৯:৪৩
আপডেট : ২৯ মার্চ, ২০২০ ১২:২৮

করোনাভাইরাস: জন্মনিরোধকের তীব্র সংকটের মুখে বিশ্ব

অনলাইন ডেস্ক

করোনাভাইরাস: জন্মনিরোধকের তীব্র সংকটের মুখে বিশ্ব
প্রতীকী ছবি

গোটা বিশ্বে এখন আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস। এরই মধ্যে বিশ্বের ১৯৯টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয়ে এসব দেশে নানা মাত্রায় লকডাউন জারি আছে। এর ফলে বন্ধ রয়েছে প্রায় সব ধরনের শিল্প কারখানা।

এমন পরিস্থিতিতে বিশ্বে জন্মনিরোধকের (কনডম) চরম ঘাটতি দেখা দিতে পারে। কারণ লকডাউনে জন্মনিরোধক উৎপাদন বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম জন্মনিরোধক প্রস্তুতকারী সংস্থা ক্যারেক্স বিএইচডি। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

জানা গেছে, ক্যারেক্স বিএইচডির তিনটি কারখানা মালয়েশিয়ায়। বিশ্বের প্রতি পাঁচটি জন্মনিরোধকের একটি উৎপাদন করে ক্যারেক্স বিএইচডি। তবে এখানেও করোনাভাইরাস প্রতিরোধে লকডাউন জারি করেছে সরকার। এ কারণে কারখানা বন্ধ থাকায় গত এক সপ্তাহে এই কোম্পানিতে একটি জন্মনিরোধকও উৎপাদন হয়নি।

ইতোমধ্যেই বিশ্বে ১০ কোটি জন্মনিরোধকের সংকট তৈরি হয়েছে। ক্যারেক্সের উৎপাদিত জন্মনিরোধক আন্তর্জাতিকভাবে ‘ডিউরেক্স’ নামে বাজারজাত করা হয়। ব্যবসা ছাড়াও যুক্তরাজ্যের জাতীয় স্বাস্থ্যসেবা (এনএইচএস) ও জাতিসংঘের জনসংখ্যা তহবিলসহ আরও নানা প্রকল্পে ক্যারেক্স জন্মনিরোধক সরবরাহ করে। উৎপাদন বন্ধ থাকায় এবার সেই সব কর্মসূচিও হুমকির মুখে পড়বে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, সারা বিশ্বে জন্মনিরোধকের চরম সংকটের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে গত শুক্রবার ওই কোম্পানিকে আবারও জন্মনিরোধক উৎপাদনের অনুমতি দেওয়া হয়। তবে করোনাভাইরাসে সতর্কতা হিসেবে মাত্র ৫০ শতাংশ কর্মীকে কারখানায় কাজে লাগানো যাবে বলে জানিয়েছিল সরকার।

এ বিষয়ে ক্যারেক্স বিএইচডির প্রধান নির্বাহী গোহ মিয়াহ কিয়াত বলেন, ‘কারখানা আবার চালু করতে একটু সময় লাগবে। অর্ধেক লোকবল নিয়ে কাজ করতে আমাদের বেশ বেগ পেতে হবে।’

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য