শিরোনাম
প্রকাশ : ৩০ মার্চ, ২০২০ ১৩:০৭

করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় রেমডেসিভির প্রয়োগ করবে মালয়েশিয়া

অনলাইন ডেস্ক

করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় রেমডেসিভির প্রয়োগ করবে মালয়েশিয়া

করোনাভাইরাসে বিশ্বে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৭ লাখ ২১ হাজার মানুষ। মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৩৪ হাজার মানুষের। চীনের সীমানা পেরিয়ে বিশ্বের ১৯৯টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাস।

এদিকে, মালয়েশিয়ায় করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত ৩৫ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। আক্রান্তের সংখ্যা ২,৪৭০ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৮৮ জন। ইতোমধ্যে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় প্রায় ৬ হাজার রোগীর চিকিৎসা দেয়ার অগ্রিম ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে দেশটির জাতীয় সুরক্ষা কাউন্সিল (এনএসসি) জানিয়েছে, কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার জন্য রেমডেসিভির নামে একটি ওষুধের কার্যকারিতা নিয়ে পরীক্ষা চালানোর জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) মালয়েশিয়াকে অন্যতম দেশ হিসেবে বেছে নিয়েছে। ২৯ মার্চ মালয়েশিয়ার দেশটির সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানায়। 

এ ব্যাপারে মালয়েশিয়ার স্বাস্থ্য মহাপরিচালক ডা. নূর হিশাম আবদুল্লাহ বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের নতুন ওষুধ রেমডেসিভির দিয়ে চিকিৎসা করবে মন্ত্রণালয় এবং সমস্ত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ও এর কার্যকারিতা পর্যবেক্ষণ করবে।

এ সময় নূর হিশাম আব্দল্লাহ বলেন, ২৭ মার্চ (শুক্রবার) ডব্লিউএইচও করোনভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে কোনো ওষুধ কাজে আসতে পারে কি না তার গবেষণা করতে কোনো দেশ আগ্রহী কি না বা সামর্থ্য আছে কি না জানতে চেয়েছিল।

‘আমরা একটি অভূতপূর্ব প্রচেষ্টা নিতে যাচ্ছি। মহামারি চলাকালে দ্রুত শক্তিশালী বৈজ্ঞানিক ডাটা সংগ্রহ করার জন্য একটি সর্বাত্মক, সমন্বিত কাজ করতে হবে। এই গবেষণাটিতে দেশের হাজার হাজার রোগী অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে, এটি যথাসম্ভব সহজ করে এমনভাবে নকশা করা হয়েছে যাতে হাসপাতালে আসা কোভিড-১৯ রোগীরা এতে অংশ নিতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ডব্লিউএইচও বিশেষ কিছু ওষুধের বিষয়ে চিকিৎসা ও পরীক্ষায় মনোযোগ দিতে বলেছে। রেমডেসিভির নামে একটি পরীক্ষামূলক অ্যান্টিভাইরাল যৌগ, ম্যালেরিয়ার ওষুধ ক্লোরোকুইন, হাইড্রোক্সাইক্লোরোকুইন, এইচআইভি’র দুটি ওষুধ লোপিনাভির, রিটোনাভির সংমিশ্রণ এবং একই সংমিশ্রণ ইন্টারফেরন-বিটা, যা এসবের প্রয়োগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে পারে; এগুলো ভাইরাসকে পঙ্গু করতে সহায়তা করতে পারে।


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য