শিরোনাম
প্রকাশ : ৫ এপ্রিল, ২০২০ ০৪:৪৫

চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধের আরো দুই আত্মীয়ের বাড়ি লকডাউন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধের আরো দুই আত্মীয়ের বাড়ি লকডাউন

চট্টগ্রাম নগরীর দামপাড়া এলাকায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া বৃদ্ধের আরো দুই আত্মীয়ের বাড়ি লকডাউন করে দিয়েছে প্রশাসন। ফলে ওই দুই বাড়ির লোকজনকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারিন্টাইন মেনে চলার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, নগরের ডবলমুরিং থানাধীন পাঠানটুলী এলাকায় যে বাড়িটি লকডাউন করেছে পুলিশ, সে বাড়ির এক বাসিন্দা চট্টগ্রামে প্রথম শনাক্ত হওয়া করোনা রোগীর নিকটাত্মীয়। ওই ব্যক্তি দামপাড়ায় করোনা আক্রান্ত রোগীকে তার বাসায় দেখতে গিয়েছিলেন। একই ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত রোগীকে ন্যাশনাল হাসপাতালেও দেখতে গিয়েছিলেন এবং তার সঙ্গে ঘনিষ্টভাবে ছিলেন।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (পশ্চিম) মো. ফারুক উল হক বলেন, পাঠানটুলী সুপারিওয়ালা পাড়া এলাকায় একটি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তি অসুস্থ হওয়ার পর তাকে দেখতে গিয়েছিলেন পাঠানটুলী এলাকার ওই ব্যক্তি। ন্যাশনাল হাসপাতালেও ওই ব্যক্তিকে দেখতে গিয়েছিলেন।

এদিকে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া রোগীর বাড়িতে দাওয়াত খেতে যাওয়ায় চন্দনাইশ উপজেলার জামিরজুরী গ্রামের একটি বাড়িও লকডাউন করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার উপস্থিতিতে ওই বাড়িতে সাধারণের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএসও ডা. শাহীন হাসান চৌধুরী।

চন্দনাইশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইমতিয়াজ হোসেন জানান, দামপাড়ায় করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তির আত্মীয় হওয়ায় চন্দনাইশ পৌরসভার জামিজুরী এলাকার এক ব্যক্তি শহরে দাওয়াত খেতে গিয়েছিলেন। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে আমরা ওই বাড়িটি লকডাউন করি।

চন্দনাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেশব চক্রবর্তী বলেন, চট্টগ্রামে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া রোগীর বাড়িতে দাওয়াত খেতে গিয়েছিলেন চন্দনাইশের ওই বাড়ির লোকজন। তাই ওই বাড়ির সবাইকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার/ফারুক তাহের

 


আপনার মন্তব্য