শিরোনাম
প্রকাশ : ৩ আগস্ট, ২০২০ ১০:১৬
আপডেট : ৩ আগস্ট, ২০২০ ১৫:০০

করোনা রুখতে সফল শৈশবে দেওয়া সেই বিসিজি টিকা!

অনলাইন ডেস্ক

করোনা রুখতে সফল শৈশবে দেওয়া সেই বিসিজি টিকা!

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে নাকাল গোটা বিশ্ব। এই ভাইরাসের থাবায় বিপর্যস্ত আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা। এখনও পর্যন্ত সফল ও কার্যকরী কোনও প্রতিষেধক আবিষ্কার না হওয়ায় ভীষণ চিন্তায় বিশ্ববাসী।

তবে এর মধ্যে এল সুখবর। করোনার গবেষণায় আরও এক নতুন তথ্য হাতে পেলেন মার্কিন বিজ্ঞানীরা।

যুক্তরাষ্ট্রে হওয়া একটি গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, বিসিজি প্রতিষেধক করোনায় সংক্রমণের গতি অনেকটাই কমিয়ে দেয়। অন্তত প্রথম ৩০ দিনে তা সম্ভব। যক্ষ্মাসহ অন্যান্য সংক্রমক রোগের বিরুদ্ধে শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে শিশুর জন্মের ১৫ দিনের মধ্যে তাদের বিসিজি টিকা দেওয়া হয়। এশিয়া, দক্ষিণ আমেরিকা এবং আফ্রিকায় শিশুদের এই টিকা দেওয়া বাধ্যতামূলক।

সায়েন্স অ্যাডভান্স’ নামে একটি মেডিকেল জার্নালে এই গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে। এতে বলা হয়, যে দেশগুলোতে বিসিজি টিকা দেওয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে, সেই দেশগুলোতে করোনা হানা দেওয়ার পর অন্তত প্রথম ২০ দিন সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার কম থাকে। করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে গত ২৯ মার্চ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ২ হাজার ৪৬৭ জনের মৃত্যু হয়। গবেষকরা দাবি করেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে যদি কয়েক দশক আগেই বিসিজি টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক থাকত, তাহলে সেই সংখ্যাটা কমে ৪৬৮-এর আশেপাশে থাকতে পারত।

করোনার বিরুদ্ধে বিসিজি প্রতিষেধক কার্যকরী কি না তা নিয়ে করা গবেষণায় ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে প্রথম ৩০ দিনে ১৩৫টি দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা এবং ১৩৪টি দেশে দৈনিক মৃতের সংখ্যার তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা হয়েছে। তা থেকেই এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন গবেষকরা। তবে করোনা রুখতে বিসিজি-কে যে ‘ম্যাজিক বুলেট’ বলা যায় না, তাও স্পষ্ট করে দিয়েছেন গবেষকরা। সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, হিন্দুস্তান টাইমস

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর