শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ জুলাই, ২০২১ ০২:১০
প্রিন্ট করুন printer

কিশোরগঞ্জে নতুন করে ৬৩ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৩

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি:

কিশোরগঞ্জে নতুন করে ৬৩ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ৩
Google News

কিশোরগঞ্জে নতুন করে ৬৩ জনের করোনা শনাক্ত এবং ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৮ হাজার ১১৫ জন এবং মোট মৃত্যুবরণ করেছেন ১৩৬ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৪৩ জন, হোসেনপুরে ৩ জন, পাকুন্দিয়ায় ১ জন, কটিয়াদীতে ৬ জন, কুলিয়ারচরে ২ জন, ভৈরবে ৩ জন, বাজিতপুরে ৪ জন ও অষ্টগ্রামে ১ জন।

সিভিল সার্জন ডা. মুজিবুর রহমান শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি আরও জানান, ২০, ২২, ২৩ ও ২৪ জুলাই (আংশিক) কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটি পিসিআর ল্যাব হতে (প্রি আইসোলেশনে ভর্তিকৃত জরুরী রোগীসহ) ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এদিকে ২৩ জুলাই বাজিতপুর জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আরটি-পিসিআর ল্যাবে ১২৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তবে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১ জনের রেপিড এন্টিজেন টেস্টে করোনার উপসর্গ পাওয়া যায়নি।

এদিকে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ৩৭ জন, সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র পেয়েছেন ২৩ জন এবং আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন ৯ জন। এ হাসপাতালে ৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়েছে। কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ৩৫ বছর বয়সী একজন পুরুষ, বাজিতপুর উপজেলার ৬০ বছর বয়সী একজন পুরুষ ও নিকলী উপজেলার ৬৯ বছর বয়সী একজন পুরুষ গত শুক্রবার শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন মোট ১৩৬ জন।

সিভিল সার্জন আরও জানান, গত ২৪ ঘন্টায় জেলায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৩২ জন। এ পর্যন্ত জেলায় মোট ৬ হাজার ১৩৬ জন সুস্থ হয়েছেন। বর্তমানে জেলায় সর্বেমোট আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ৮৪৩ জন। এরমধ্যে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলায় ৮৩৫ জন, হোসেনপুরে ১২৩ জন, করিমগঞ্জে ৫৩ জন, তাড়াইলে ৪১ জন, পাকুন্দিয়ায় ১৬৫ জন, কটিয়াদীতে ২৪১ জন, কুলিয়ারচরে ৪৪ জন, ভৈরবে ১৮৯ জন, নিকলীতে ১৭ জন, বাজিতপুরে ৮০ জন, ইটনায় ৩১ জন, মিঠামইনে ১৯ জন ও অষ্টগ্রামে ৫ জন।
সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে / আইসোলেশনে রয়েছেন ১ হাজার ৭৭৫ জন। আর হাসপাতাল আইসোলেশনে রয়েছেন ৬৮ জন। 

গত ২৪ ঘন্টায় টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন ৪২৯ জন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশন করেছেন ১ লক্ষ ৬৭ হাজার ৩৮৫ জন। গত ২৪ ঘন্টায় সাইনোফার্ম ভ্যক্সিনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন ২ হাজার ৪২৭ জন। গত ১৯ জুন থেকে সাইনোফার্ম ভ্যাক্সিনের প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন মোট ২২ হাজার ৬৪৭ জন। গত ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত কোভিশিল্ড ভ্যাক্সিনের প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছেন ৭৬ হাজার ৬৬৫ জন এবং মোট দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৫৯ হাজার ৩০৭ জন।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার 

এই বিভাগের আরও খবর