শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ২৩:৪১

ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে চলছে যান

আখাউড়া-আগরতলা আন্তর্জাতিক সড়ক

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে চলছে যান

ঢাকা-আগরতলা আর্ন্তজাতিক সড়কের আখাউড়ার আবদুল্লাহপুর এলাকার জাজি নদীর উপর ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি সেতু দিয়ে চলছে যান। দীর্ঘ দেড় বছরেও ঝুঁকিপূর্ণ সেতুটির মেরামতের উদ্যোগ নেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সেতুটি দিয়ে যান চলাচলের সময় বিকট শব্দের কারণে পাশের আব্দুল্লাহপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া বিঘিœত হচ্ছে বলে অভিযোগ শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের। স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে তীব্র ¯্রান্ডেতে সেতুর মাঝখানের একটি বিম সরে কাঁত হয়ে পড়ে। এ সময় উপজেলা প্রশাসন ও সওজ কর্তৃপক্ষ সেতুর ওপর দিয়ে ১০ টনের বেশি ওজনের যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। পরে সেতুর ক্ষতিগ্রস্ত পিলার ও পাটাতনের মাঝে কাঠ বসায় সওজ কর্তৃপক্ষ। কয়েক ফুট দূরে অস্থায়ী স্টিলের পিলার বসনো হয়। সেটাও এখন মূল সেতু থেকে ফাঁকা হয়ে গেছে। উপজেলার গাজীরবাজার এলাকার এই সেতু দিয়েই আখাউড়া স্থলবন্দরে যেতে হয়। সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় স্থলবন্দরের পণ্যবাহী গাড়ি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানিসহ কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাবে। আখাউড়া বন্দর সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন প্রায় ১৫-২০টি ট্রাক এই সেতুর দিয়ে আগরতলা যায়। তাছাড়া আখাউড়া-আগরতলা বন্দর দিয়ে দিনে দুই বাংলার পাঁচ শতাধিক যাত্রী আসা-যাওয়া করে। চলছে যাত্রীবাহী বাসও। সেতু সংলগ্ন আব্দুল্লাহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বোরহান উদ্দিন বলেন, ব্রিজের উপর ট্রাক বা বাস উঠলেই বিকট শব্দ হয়। সারাদিন উচ্চ শব্দ সহ্য করতে হয় শিক্ষার্থীদের। এতে তাদের মনোসংযোগে বিঘ্ন ঘটে। শিক্ষকদের উচ্চ স্বরে কথা বলতে হয়। ট্রাকচালক মনি লাল ও রফিক মিয়া বলেন, সেতুতে গাড়ি উঠলে কাঁপতে থাকে। ভয়ে বন্দরে চালকরা আসতে চান না। আখাউড়ার ইউএনও মোহাম্মদ শামসুজ্জামান বলেন, ‘সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ছে।’ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী শামীম আল মামুন জানান, এই সেতুর উপর দিয়ে সর্বোচ্চ ১০-১২ টন ওজনের যান চলাচল করতে পারবে। আপাতত অস্থায়ীভাবে মেরামত করা হয়েছে সচল রাখার জন্য। বেইলি সেতুর পাশে আরেকটি নতুন সেতু নির্মাণের প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে।


আপনার মন্তব্য