শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৫ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৫ মার্চ, ২০২০ ০০:০৩

কুমিল্লা নগরীতে জীবিকার আশায় নিম্ন আয়ের মানুষ

মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

কুমিল্লা নগরীতে জীবিকার আশায় নিম্ন আয়ের মানুষ

ব্যস্ত কুমিল্লা নগরীতে এখন ভিড় নেই। রুদ্ধশ্বাসে ছুটছে মানুষজন। গন্তব্যে পৌঁছে কাজ সেরে আবার বাসায় ফিরছে। রাস্তার পাশে যতটুকু ভিড় তা শুধু নিম্ন আয়ের মানুষজনের। জীবিকার টানে ঝুঁকি নিয়ে বেরিয়েছে তারা। সাধারণ ছুটি ঘোষণা ও সেনা মোতায়েনের খবরের পর মঙ্গলবার থেকে এমনই চিত্র ফুটে ওঠে। সকাল ১০টায় নগরীর অন্যতম প্রবেশদ্বার শাসনগাছা বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, বাসচালক ও হেল্পারদের হাঁকডাক আছে। তবে বাসস্ট্যান্ডমুখী যাত্রীদের চাপ নেই। সকাল সোয়া ১০টায় রেসকোর্স পুলিশ লাইন এলাকায় গিয়ে দুই-একটা খাবার দোকান খোলা থাকতে দেখা যায়। বেলা ১১টায় কান্দিরপাড় টাউন হলের সামনে গিয়ে দেখা যায়, কাজের আশায় বসে আছেন জনাত্রিশেক দিনমজুর। সবার সামনে ঝুড়ি আর কোদাল। কেতাদুরস্ত পোশাকের কাউকে দেখলেই এগিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসা করেন কাজের লোক লাগবে কিনা। নীলফামারীর আজাদ থাকেন ধর্মপুরে। জানালেন করোনাভাইরাসের প্রভাবে গতকালও কেউ কাজে নেয়নি। আজ ১১টা হয়ে গেল। কেউ কাজে নেয়নি। আগের কিছু টাকা জমা আছে। এগুলো দিয়ে চলছি। পাশে টাউন হলের মূল ফটক তালাবদ্ধ। পলিথিনে মোড়ানো চা-দোকানগুলো। লিবার্টি চত্বরের চা দোকানগুলোতে নেই আড্ডা। মনোহরপুরে দুই-একজন ক্রেতাকে রসমলাই কিনতে দেখা গেছে। তবে লাইনে দাঁড়ানো ক্রেতাসমাগম চোখে পড়েনি। মনোহরপুরের সোনালী ব্যাংকের মূল ফটকে শতাধিক গ্রাহককে দেখা যায় অপেক্ষা করতে।  ঝাউতলা থেকে আসা গৃহিণী আয়েশা জানান, সঞ্চয়পত্রের লভ্যাংশ তুলে নিতে ব্যাংকে এসেছেন। আজ ব্যাংকের সামনে বেশির ভাগ তার মতো। সবাই অপেক্ষা করছে লেনদেন শেষ করে বাসায় কখন ফিরবে। অপেক্ষারত গ্রাহকদের চোখে-মুখে আতঙ্কের ছাপ। জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর জানান, টিসিবির মাধ্যমে পণ্য পাওয়া যাচ্ছে। ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী খেটে খাওয়া মানুষদের খাবারের ব্যবস্থা করব।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর