শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৮ মার্চ, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ মার্চ, ২০২০ ২৩:৩২

জয়পুরহাটে মুরগি কিনছেন না কেউ

বাচ্চা ২ টাকা, দিশাহারা খামার মালিকরা

জয়পুরহাট প্রতিনিধি

জয়পুরহাটে মুরগি কিনছেন না কেউ

করোনাভাইরাসের কারণে হাট-বাজার এবং গণপরিবহন বন্ধ থাকায় জয়পুরহাটে মুরগির দাম কেজিতে ৪০ টাকা এবং ডিম হালিতে ১০ টাকা কমেছে। সোনালি জাতের মুরগির বাচ্চা বিক্রি হচ্ছে মাত্র ২ টাকায়। এমন পরিস্থিতিতে জয়পুরহাটের পোলট্রি মালিকরা দিশাহারা হয়ে পড়েছেন।

জয়পুরহাটের শেফালী পোলট্রি অ্যান্ড হ্যাচারির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু বকর সিদ্দিক গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, গত ৩ দিন থেকে ক্রেতা না থাকায় এবং গণপরিবহন, বিশেষ করে মুরগি বাহিত গাড়ি চলাচল করতে না পারায় জয়পুরহাটে সোনালি জাতের মুরগি ১৮০ থেকে নেমে ১৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ডিম ২৮ টাকা হালি থেকে ১৮-২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর হ্যাচারিতে উৎপাদন করা সোনালি জাতের মুরগির বাচ্চা বিক্রি হচ্ছে ১ থেকে ২ টাকায়। গতকাল থেকে কোনো ক্রেতাই আসেননি মুরগি কিনতে। তিনি জানান প্রতিকেজি সোনালি জাতের মুরগি পালন করতে খরচ হয় ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা, ডিমে খরচ পড়ে ২২ টাকা এবং বাচ্চা তৈরিতে               খরচ হয় ১৭ টাকা। সেখানে এখন মুরগি, ডিম, বাচ্চা সবই লোকসান দিয়ে বিক্রি করতে হচ্ছে। তিনি ৪ হাজার মুরগির বাচ্চা বিনা পয়সায় বিতরণ করেছেন বলে জানান।  

পোলট্রি ব্যবসায়ী এবং রুকিন্দীপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আহসান কবীর এপ্লব জানান সোনালি জাতের মুরগির দাম কমের সঙ্গে সঙ্গে ব্রয়লার জাতের মুরগির কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকায়। জেলায় প্রায় ৮ হাজার খামারি এবং ২০০ হ্যাচারির মালিক এ অবস্থায় চরম দুর্দশায় পড়েছেন। তাই শুক্রবার দুপুরে পোলট্রি শিল্প রক্ষায় পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সালাম কবিরের সঙ্গে মতবিনিময় করে মুরগিবাহী গাড়ি চলাচলে পুলিশের সহযোগিতা চেয়েছেন।


আপনার মন্তব্য