শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ মার্চ, ২০২০ ২৩:৩২

করোনাভাইরাসে সুগন্ধি ছড়াচ্ছে ভাট ফুল

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

করোনাভাইরাসে সুগন্ধি ছড়াচ্ছে ভাট ফুল

করোনাভাইরাস আতঙ্কে যখন দেশের মানুষ ঘরবন্দী তখন ফাঁকা রাস্তায় সারি সারি ভাট ফুল সৌন্দর্য ও সুগন্ধি বিলিয়ে যাচ্ছে। দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের হাইওয়েতে দিনের বেলা গুচ্ছ গুচ্ছ ভাট ফুল আর রাতে এর সুগন্ধি মন ভরিয়ে দেয়।

শুধু পঞ্চগড়ই নয় সারা দেশের দেখা মেলে ভাট ফুলের। ঝোপঝাড়ে জঙ্গলে, রাস্তার ধারে দেখা যায় এই ফুল। বন জুঁই নামেও পরিচিত। এ ছাড়া এলাকা বিশেষে এই ফুলকে ভাইটা, ভাত ফুল, ঘেটু ফুল ও ঘণ্টাকর্ণ নামেও সম্বোধন করা হয়। ইংরেজিতে হিল গ্লোরি বোয়ার নামে পরিচিত। পঞ্চগড় জেলায় ভাট ফুলের গাছ রান্নার খড়ি হিসেবে ব্যবহৃত হয়। পাঁচটি পাপড়ি হয় ভাট ফুলের। পাপড়ির গোড়ার দিকটা হালকা বেগুনি। প্রতি ফুলে চারটি করে পুংকেশর সামনের দিকে বেরিয়ে আসে। পুংকেশরের অগ্রভাগ স্ফীত ও কালো। প্রকৃতিতে রাতে মিষ্টি গন্ধ ছড়ায় এই ফুল। ভাট ফুলের রয়েছে ওষুধি গুণ। বিষাক্ত কিছু কামড় দিলে এ ফুলের পাতার রস লাগিয়ে দিলে দ্রুত কাজে দেয়। কৃমি দূর করার জন্য অনেকে ভাট ফুলের পাতার রস খেয়ে থাকেন। গরু-ছাগলের উকুন তাড়ানোর কাজে লাগে এই ফুলের পাতা। এ ছাড়া চর্মরোগেও কাজে আসে। ৯০-এর গণ আন্দোলনের নেতা ও সাবেক এমপি নাজমুল হক প্রধান সম্প্রতি ফেসবুকে এই ফুলের ছবি আপলোড করেন। ছবিটি ভাইরাল হয়। পরে স্মৃতিকাতর হয়ে তিনি বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, করোনা আতঙ্কে এখন গ্রামের বাড়িতে লকডাউন হয়ে আছি। বাড়ির আশপাশে যেখানে সেখানে ভাট ফুল ফুটে আছে। রাতে মনভরানো সুগন্ধি পাই। দেশের এই দুঃসময়ে ভাট ফুলের সৌন্দর্য মন নাড়া দেয়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর