শিরোনাম
প্রকাশ : রবিবার, ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:৪৩

সুন্দরবনে বিষ ঢেলে মাছ নিধনের মহোৎসব

বাগেরহাট প্রতিনিধি

সুন্দরবনে বিষ ঢেলে মাছ নিধনের মহোৎসব

বাগেরহাটে পূর্ব সুন্দরবন বিভাগে বাঘ, হরিণসহ বন্যপ্রাণী হত্যার পাশাপাশি মহোৎসব চলছে নদী ও খালে বিষ ঢেলে মাছসহ জলজ প্রাণী নিধনে। গত ছয় মাসে সুন্দরবনের বিভিন্ন খালে বিষ দিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ আহরণকালে ১০ ‘বিষ সন্ত্রাসী’কে গ্রেফতার করেছে বন বিভাগ। পালিয়ে গেছে কমপক্ষে  ২৮ থেকে ৩০ বিষ সন্ত্রাসী। জব্দ করা হয়েছে ২৫ বোতল বিষ, বিভিন্ন প্রকারের ৭টি জাল, ২টি খালপাটা ও ১০টি নৌকাসহ বিষ দিয়ে আহরিত প্রায় ৭৭ কেজি বিভিন্ন প্রজাতির চিংড়িসহ সাদা মাছ। বন বিভাগের দেওয়া এসব তথ্য সুন্দরবনের ৪টি রেঞ্জের মধ্যে শুধু চাঁদপাই রেঞ্জের। সুন্দরবনের ৪টি রেঞ্জের মধ্যে চাঁদপাই রেঞ্জে ছয় মাসে বিষ দিয়ে মাছ আহরণের ভয়াবহ চিত্রই বলে দিচ্ছে ম্যানগ্রোভ এই বনের মাছসহ জলজ প্রাণীকুলের বর্তমান অবস্থা। খালে বিষ দিয়ে মাছ আহরণের ফলে সুন্দরবনের মৎস্য ভান্ডার মাছশূন্য হয়ে পড়ার পাশাপাশি খালে পানির বিষ বনের যেসব এলাকায় ছড়িয়ে পড়ছে। সেসব বন এলাকার জীববৈচিত্র্যের ওপরও মারাত্মক প্রভাব পড়ছে। ছোট-বড় সব প্রজাতির মাছ মারা যাওয়ার পাশাপাশি মারা পড়ছে রপ্তানি পণ্য বিশ্বখ্যাত শিলা কাঁকড়াসহ অন্যসব জলজপ্রাণী। বাগেরহাটের পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন মুঠোফোনে বলেন, প্রতি বছর সুন্দরবনের এই বিশাল জলভাগ থেকে আহরিত হয় ৪ হাজার ৪১৫ মেট্রিক টন বিভিন্ন প্রজাতির মাছ। বন বিভাগের দুর্বল নজরদারির ফলে এক শ্রেণির জেলে বৈধ-অবৈধ পথে সুন্দরবনে ঢুকে অধিক লাভের আশায় ম্যানগ্রোভ এই বনের খালে বিষ দিয়ে মাছ আহরণ করে আসছে।

এই বিভাগের আরও খবর