শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ২৩:২০

বদরগঞ্জে আমচাষিদের কপালে চিন্তার ভাঁজ

বদরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি

বদরগঞ্জে আমচাষিদের কপালে চিন্তার ভাঁজ

রংপুরের বদরগঞ্জের আম বাগানগুলোতে কাক্সিক্ষত মুকুল না আসায় আম চাষিদের কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। শুরুতে কিছু গাছে আমের মুকুল দেখে আম চাষিরা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেও বর্তমানে বাগানের বেশিরভাগ গাছে এখন পর্যন্ত মুকুল না আসায় চিন্তার মাত্রা যেন তাদের আরও বেড়ে গেছে। এখন কী করবেন। তারা বুঝে উঠতে পারছেন না। কারণ শুরু হতে এখন পর্যন্ত বাগানে জৈব সার, কীটনাশক, হরমোন, সেচসহ পরিচর্যা বাবদ অনেক অর্থ বিনিয়োগ করেছেন। সরেজমিনে গতকাল সকালে উপজেলার আম বাগান ঘুরে আম চাষিদের সঙ্গে কথা বলে এবং বাগানের গাছগুলোতে মুকুল কম আসার এ চিত্রই চোখে পড়েছে। কথা হয় উপজেলার কালুপাড়া ইউপির আম চাষি মাহাফুজ ওয়াহিদ চয়নের সঙ্গে, তিনি জানান, আমার ২০ বিঘা জমিতে হাঁড়ি ভাঙা জাতের আম বাগান রয়েছে। শুরুতে কিছু গাছে মুকুল দেখে ভালো লেগেছিল। মুকুলের সময় পেরিয়ে যাওয়ার উপক্রম হলেও বেশিরভাগ গাছে এখন পর্যন্ত আশানুরূপ মুকুল না আসায় আমি হতাশ হয়েছি। ইতিমধ্যে সেচসহ গাছ পরিচর্যা বাবদ অনেক টাকা খরচ করেছি। জানি না ভাগ্যে কী আছে। বদরগঞ্জ উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা কনক রায় জানান, বদরগঞ্জ উপজেলায় ৩৯৫ হেক্টর জমিতে আম বাগান রয়েছে। এ বছর আম বাগানগুলোতে আমের মুকুল এসেছে গত বছরের তুলনায় অর্ধেক। এ বিষয়টিকে আমরা অফ ইয়ার হিসেবেই দেখছি। বদরগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার গোলাম মোস্তফা মো. জোবায়দুর রহমান মামুন জানান, এ বছর আম বাগানগুলোতে মুকুল কম আসার বিষয়টিকে আমরা অল্টারনেটিভ বিয়ারিং হিসেবে দেখি।

কোন বছর গাছে মুকুল বেশি আসবে কোন বছর কম আসবে। তবে গাছে যতটুকু মুকুল ধরেছে ততটুকুই যদি আম চাষিরা সঠিকভাবে পরিচর্যা করেন তাতেই তারা লাভবান হবেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর