শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ মার্চ, ২০২১ ২৩:৩৬

পদ্মার দুর্গম চরে বিদ্যুৎ

ফরিদপুর প্রতিনিধি

পদ্মার দুর্গম চরে বিদ্যুৎ

পদ্মা নদীর তলদেশ দিয়ে সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে ফরিদপুরের চরাঞ্চলের ২০১টি পরিবার ও প্রতিষ্ঠানকে বিদ্যুৎসংযোগ দেওয়া হয়েছে। গতকাল এ সংযোগ উদ্বোধন করেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার। এর মধ্যে ১৯৭টি পরিবার, একটি বাণিজ্যিক ও তিনটি দাতব্য প্রতিষ্ঠানে এ সংযোগ দেওয়া হয়। এ উপলক্ষে ফরিদপুর সদরের ডিক্রিরচর ইউনিয়নের আইজদ্দিন মাতুব্বরের ডাঙ্গী এলাকায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন পল্লী বিদ্যুতের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী বেলায়েত হোসেন। জীবনে প্রথমবারের মতো চরে বিদ্যুৎ সংযোগ পেয়ে চরবাসীর খুশির সীমা নেই। তারা আজকের এ দিনটিকে ঈদের দিন হিসেবে উল্লেখ করেছেন। চর এলাকায় ঘুরে এলাকাবাসীর মনে খুশির ঝিলিক দেখা গেছে। ওই এলাকার বাসিন্দা গৃহবধূ লাবনী বেগম (২৪) জানান, মনে হচ্ছে আজ ঈদের দিন। সকাল থেকে পোলাপানদের চোখে-মুখে খুশির ঝলক দেখে আনন্দে বুক ভরে গেছে। আমাদের ঘরে বিদ্যুতের আলো জ্বলবে তা তো ভাবতেই পারছি না। সব যেন স্বপ্নের মতো মনে হয়। পালডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী রানী আক্তার (১৩) বলে, কি যে খুশি লাগছে তা বোঝাতে পারব না। এতদিন শহরের মানুষরা শুধু বিদ্যুৎ জ্বালতে পারত। এখন আমরাও পারব। গৃহবধূ মুক্তা খাতুন বলেন, সবচেয়ে সুবিধা হবে পোলাপানদের। তারা বিদ্যুতের আলোতে পড়তে পারবে। কৃষক মো. ফজলুর রহমান বলেন, চাষের জমিতে শ্যালো মেশিন দিয়ে সেচ দিতে হতো। এতে প্রতিদিন ৫ লিটার তেল লাগত। এখন আর তেল খরচ হবে না, বিদ্যুতের মোটর দিয়েই পানি দিতে পারব খেতে। অটোচালক মো. জালাল মোল্লা (৫৮) বলেন, এতদিন বিদ্যুৎ না থাকায় শহরে অটো চার্জ দিয়ে শহরেই চালাতে হতো। এখন বাড়িতে অটো বাইক চার্জ দিয়ে গ্রামেই ভাড়া মারতে পারব। এ আনন্দ ভাষায় বুঝাতে পারব না। ফরিদপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সূত্রে জানা গেছে, পদ্মা নদীর তীর সংলগ্ন ফরিদপুর সদরের সিঅ্যান্ডবি ঘাট ও ভূঁইয়াবাড়ী ঘাট এবং চরভদ্রাসন উপজেলার চর হাজিগঞ্জ ঘাট ও গোপালপুর ঘাট থেকে পদ্মা নদীর তলদেশ দিয়ে মোট ছয় কিলোমিটার পথ সাবমেরিন ক্যাবল টেনে চর এলাকায় এ বিদ্যুৎ প্রদান কর্মসূচি বাস্তবায়িত হচ্ছে। গত ২০১৯ সালের ২২ ডিসেম্বর এ কাজ শুরু হয়। ব্যয় ধরা হয়েছে ২ কোটি ৮০ লাখ টাকা। এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে চরভদ্রাসন উপজেলার গাজীরটেক, চর ঝাউকান্দা ও চর হরিরামপুর ইউনিয়নের ৩ হাজার ১৮৫ পরিবার, সদরপুর উপজেলার নাসিরপুর ও ঢেউখালী ইউনিয়নের ৬০০ পরিবার, ফরিদপুর সদরের ডিক্রিরচর ও নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের ১ হাজার ৮৮০ পরিবারসহ আরও কিছু এলাকা বিদ্যুতের আওতায় আসবে।


আপনার মন্তব্য